মির্জাপুরে ৬৬৮ জন জিপিএ-৫ প্রাপ্ত শিক্ষার্থীকে সংবর্ধনা

378

স্টাফ রিপোর্টার, মির্জাপুর ॥
ভূমি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য ও টাঙ্গাইল-৭ মির্জাপুর আসনের সংসদ সদস্য খান আহমেদ শুভ বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উন্নত সমৃদ্ধ এবং আগামী দিনে আগামী প্রজন্মের বসবাসের উপযোগী একটি দেশ গড়তে চান। তাই তিনি আগামী প্রজন্মকে শিক্ষিত করে গড়ে তুলার জন্য প্রচেষ্টা চালাচ্ছেন। বছরের প্রথম দিন দেশের সকল শিক্ষার্থীর হাতে বিনামূল্যে বই তুলে দিচ্ছেন তিনি। আজকের কৃতি সন্তানরা আগামী দিনে এই দেশের উন্নয়নে ভূমিকা রাখবে।




‘শিক্ষা নিয়ে গড়বো দেশ শেখ হাসিনার বাংলাদেশ’ এই শ্লোগানকে সামনে রেখে টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে এসএসসি পরীক্ষায় জিপিএ-৫ প্রাপ্ত ৬৬৮ জন শিক্ষার্থীকে দেয়া সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।
মঙ্গলবার (২৭ ডিসেম্বর) দুপুরে মির্জাপুর সরকারি কলেজ চত্বরে স্থানীয় সংসদ সদস্য খান আহমেদ শুভ ও উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে এই সংবর্ধনা দেয়া হয়। ২০২২ সালের এসএসসি, এসএসসি (ভোকেশনাল) ও দাখিল পরিক্ষায় জিপিএ-৫ প্রাপ্ত ৬৬৮ শিক্ষার্থীকে সংবর্ধনা দেওয়া হয়। এছাড়া মাধ্যমিকের তিন স্তরে ভাল ফলাফলের জন্য ৯ প্রতিষ্ঠানকে ক্রেস্ট প্রদান করা হয়েছে।




মির্জাপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. হাফিজুর রহমানের সভাপতিত্বে অন্যদের মধ্যে মির্জাপুর সরকারি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ তাহমিনা জাহান, মির্জাপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) গিয়াস উদ্দিন (পিপিএম), উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. জুলফিকার হায়দার, ভারতেশ্বরী হোমসের সহকারী অধ্যাপক গিতা রানি ঘোষ, মির্জাপুর সরকারি এস কে পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রফিকুল ইসলাম খান, দেওহাটা এ জে উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. খোরশেদ আলম, সংবর্ধিত শিক্ষার্থী ফয়সাল খান শিশির, স্বস্তিকা ঘোষ, সুলতানা রাজিয়া সারা, আরিফুন্নেসা মিম প্রমুখ বক্তৃতা করেন। এর আগে মির্জাপুরের বিভিন্ন বিষয়ের ওপর নির্মিত প্রামাণ্য চিত্র প্রদর্শন এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হয়।




ভারতেশ্বরী হোমস থেকে গোল্ডেন জিপিএ-৫ প্রাপ্ত ঝুমা খান বলেন, এ সংবর্ধনা সকল শিক্ষার্থীকে আগামী দিনে লেখাপড়ার প্রতি উৎসাহ যোগাবে।
মির্জাপুর পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রী সুমাইয়া জাহানের মা জিয়াসমিন আক্তার জানান, তার মেয়ে ১২৫১ নম্বর পেয়ে উপজেলায় প্রথম স্থান অর্জন করেছে। এই সংবর্ধনা অনুষ্ঠান সকল শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি সকল অভিভাবকদেরও উৎসাহ যোগাবে বলে তিনি জানান।




দেওহাটা এ জে উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক খোরশেদ আলম জানান, মির্জাপুরে এই প্রথম জিপিএ-৫ প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনার আয়োজন করায় আমরা মুগ্ধ। এতে লেখাপড়ার মান বৃদ্ধি পাবে বলে তিনি মন্তব্য করেন।
পরে প্রধান অতিথি এবং বিশেষ অতিথিবৃন্দ জিপিএ-৫ প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের ফুল, কৃতিত্ব সনদ, অভিনন্দনপত্র ও মেডেল উপহার দেন।

 

ব্রেকিং নিউজঃ