হাইকোর্টের নির্দেশে দেলদুয়ার বাথুলী স্কুলের প্রধান শিক্ষককে সাময়িক অব্যাহতি

518

1207স্টাফ রিপোর্টারঃ

ব্যাপক অনিয়ম, দুর্নীতি, স্কুলের টাকা আত্মসাৎ, শিক্ষক-কর্মচারী ও অভিভাবকদের সাথে অসদাচরণ ও ভুয়া ভোটার তৈরী করে অনিয়মের মাধ্যমে পছন্দের লোকদের দিয়ে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটি তৈরি করায় ফেঁসে গেছেন দেলদুয়ার বাথুলী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হোসনে আরা আক্তার।
জালিয়াতির আশ্রয় নিয়ে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটি তৈরি করায় বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা মরহুম অধ্যক্ষ হুমায়ূন খালিদের ছেলে খালিদ মুরাদুজ্জামান, অভিভাবক রওশন আরা বেগম ও বিদ্যালয় শিক্ষক মনিন্দ্র কুমার নাগ মহামান্য হাইকোর্টে একটি রিট পিটিশন দায়ের করেন। রিট পিটিশন নং ৪৫৮৪/২০১৫। প্রাথমিক শুনানীর পর মাহামান্য আদালত উক্ত কমিটির কার্যক্রম ৬ মাসের জন্য স্থগিতের আদেশ প্রদান করেন। মামলা চলমান থাকা অবস্থায় প্রধান শিক্ষক তার বাহাম ভুক্ত লোকজন নিয়ে একজন বাদীকে ভয়ভীতি প্রদর্শন করে সাদা কাগজে স্বাক্ষর নেন। উক্ত স্বাক্ষরিত সাদা কাগজে প্রধান শিক্ষক নিজ হাতে বাদীর অজান্তে বাদী মামলা প্রত্যাহার করতে চান মর্মে ইচ্ছামত গদ লিখে মহামান্য হাইকোর্টে জমা দেন। পরবর্তীতে বাদী জানতে পেরে দেলদুয়ার থানায় একটি জিডি করেন এবং প্রধান শিক্ষকের জালিয়াতির বিষয়টি মহামান্য হাইকোর্টকে অবহিত করেন। পরবর্তীতে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি মোঃ আতোয়ার রহমান ও প্রধান শিক্ষক হোসনে আরা আক্তারকে স্বশরীরে আদালতে উপস্থিত থাকার নির্দেশ প্রদান করেন। মহামান্য আদালত উভয় পক্ষের শুনানী শেষে আগামী ৩ নভেম্বর ২০১৫ সাল পর্যন্ত বিদ্যালয়ের সকল কার্যক্রম থেকে অব্যাহতির নির্দেশ দেন। এছাড়া আগামী ৩ নভেম্বর ২০১৫ সালের মধ্যে দেলদুয়ার উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে বিষয়টি তদন্ত করে প্রতিবেদন জমা দেয়ার নির্দেশ প্রদান করেন।

ব্রেকিং নিউজঃ