সখীপুরে ৮ রাতে ১৮ বাড়িতে চুরি ॥ আইনশৃঙ্খলার অবনতি

159

মোস্তফা কামাল, সখীপুর ॥
টাঙ্গাইলের সখীপুর উপজেলার কালিয়া ইউনিয়নে গত ৮ রাতে ১৮ বাড়িতে চুরির ঘটনা ঘটেছে হয়েছে। এসব চুরির ঘটনায় কালিয়া ইউনিয়নে স্থানীয়দের মধ্যে চোর আতঙ্ক বিরাজ করছে। এ ঘটনায় আইনশৃঙ্খলার চরম অবনতি হয়েছে বলে স্থানীয়রা অভিযোগ করেছেন।
স্থানীয়রা টিনিউজকে জানায়, সর্বশেষ গত মঙ্গলবার (১৪ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাতে উপজেলার আড়াইপাড়া গ্রামের জিন্নত আলী ও মজিবর খলিফার বাড়িতে চুরি হয়েছে। গত বুধবার (১৫ সেপ্টেম্বর) রাত থেকে ওই ইউনিয়নের প্রতিটি গ্রামে পাহারা দেওয়ার ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে কালিয়া ইউনিয়ন পরিষদ। পুলিশও বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) থেকেই পৃথক টহলের ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে।
খোঁজ নিয়ে জানা যায়, গত (৭ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাতে কালিয়া ইউনিয়নের কুতুবপুর চারিবাইদা এলাকায় সিঁধ কেটে ৪ বাড়িতে চুরির ঘটনা ঘটে। পরদিন গত (৮ সেপ্টেম্বর) রাতে দামিয়াপাড়া ও বানিয়ারসিট গ্রামের ৫ বাড়িতে চোরেরা চেতনানাশক স্প্রে ব্যবহার করে স্বর্ণালংকার, নগদ টাকা ও মুঠোফোন নিয়ে যায়। দামিয়াপাড়া গ্রামের সৌদি আরব প্রবাসী আবদুল আলীম টিনিউজকে বলেন, আমাদের ঘরের জানালার গ্রিল কেটে ভেতরে ঢুকে স্ত্রী, চার মেয়ে, ছেলের বউ, শাশুড়িসহ পরিবারের সবার প্রায় ১০ ভরি স্বর্ণ ও নগদ ৩১ হাজার টাকা চুরি করে নিয়ে যায়। গত (৯ সেপ্টেম্বর) রাতেও বানিয়ারসিট গ্রামে একই কায়দায় আরও ২ বাড়িতে চুরি হয়। গত (১১ সেপ্টেম্বর) রাতে একই ইউনিয়নের দামিয়াপাড়া গ্রামের আবদুল হাকিম সিকদার, আকবর সিকদার ও শাহজাহান মিয়ার বাড়িতে চুরি হয়। তিন বাড়িতেই টিনের বেড়া কেটে চুরির ঘটনা ঘটে।
গত সোমবার (১৩ সেপ্টেম্বর) রাতে ইউনিয়নের বানিয়ারসিট গ্রামের উত্তরপাড়ার চান মাহমুদ মিয়া এবং একই গ্রামের কোনাপাড়ার আবুল কালাম মিয়ার বাড়িতে সিঁধ কেটে চুরি হয়। চোরেরা চান মাহমুদের বাড়ি থেকে ১৭ হাজার টাকা ও নতুন দুটি স্মার্টফোন এবং আবুল কালামের বাড়ি থেকে তিন হাজার টাকা নিয়ে যায়। আবুল কালাম টিনিউজকে বলেন, বাড়িতে চুরি যাওয়ার বিষয়টি কালিয়া ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যানকে জানিয়েছি। চুরির ঘটনা থানায় জানিয়েও কোন লাভ নয়নি। তারা কোন পদক্ষেপই নেয়নি।
এ বিষয়ে দামিয়া পাড়া কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের সাধারণ সম্পাদক কাজী শফিউল বাশার টিনিউজকে বলেন, সাম্প্রতিক সময়ে আমাদের গ্রামগুলোতে চুরির ঘটনা বেড়েছে অনেক। এখন পর্যন্ত কোনো চোর ধরা পড়েনি। আমাদের এলাকার লোকজন খুবই আতঙ্কিত অবস্থায় আছে। সারা দিন পরিশ্রম করে কেউ রাতে ঠিকমতো ঘুমাতে পারছে না। মঙ্গলবার (১৪ সেপ্টেম্বর) রাতে উপজেলার আড়াইপাড়া গ্রামের জিন্নত আলীর বাড়িতে সিঁধ কেটে চুরি হয়।
এ বিষয়ে কালিয়া ইউপি চেয়ারম্যান কামরুল হাসান টিনিউজকে বলেন, গত ৮ রাতে ইউনিয়নের ১, ২, ৩ নম্বর ওয়ার্ডের ১৮ বাড়িতে চুরি হয়েছে। তাই সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডের ইউপি সদস্যদের নেতৃত্বে গ্রাম পুলিশ ও স্থানীয়দের নিয়ে কমিটি করে প্রতিটি গ্রামে রাতে পাহারার ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।
এ ব্যাপারে সখীপুর থানার (ওসি) এ কে সাইদুল হক ভুইঁয়া টিনিউজকে বলেন, ওই ইউনিয়নের সংশ্লিষ্ট গ্রাম পুলিশের বিশেষ টহল মোতায়েন থাকবে।

 

ব্রেকিং নিউজঃ