সখীপুরে স্ত্রীর স্বীকৃতির দাবিতে ৫ দিন ধরে তরুণীর অনশন

40

সখীপুর প্রতিনিধি ॥
ভালোবেসে বিয়ে করেও ঘর বাঁধতে পারছে না নুরজাহান আক্তার (১৮) নামের এক তরুণী। স্ত্রীর স্বীকৃতির দাবিতে ৫ দিন ধরে স্বামীর বাড়িতে টাঙ্গাইলের সখীপুর উপজেলার কাকড়াজান ইউনিয়নের ভাতগড়া গ্রামে অনশন করছে তিনি। দেড় মাস আগে ওই গ্রামের রমজান খানের ছেলে নিরব হোসেনের সাথে তার বিয়ে হয়। নুরজাহান ফুলবাড়িয়া উপজেলার ফুলতলা গ্রামের দরিদ্র সুরুজ মিয়ার মেয়ে।




অনশনরত নুরজাহান জানায়, গত ১ বছর আগে নিরবের সাথে তার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এর সূত্র ধরে দেড় মাস আগে পরিবারের অজান্তে তারা পালিয়ে বিয়ে করে। বিয়ের পর একটি বাসা ভাড়া নিয়ে থাকত তারা। কিছুদিন আগে নুরজাহানকে ফেলে নিরব বাসা ছেড়ে মোবাইল বন্ধ করে আত্মগোপন করে।




কোন উপায় না পেয়ে নুরজাহান গত মঙ্গলবার নিরবের বাড়িতে আসে এবং স্ত্রীর স্বীকৃতি দাবিতে অনশন শুরু করে। এ সময় নিরবের মা ও খালাতো বোন নুরজাহানকে ঘরে ঢুকতে বাঁধা প্রদান করে এবং নিরব আত্মগোপন করেন। ফলে চাচার বাড়িতে নুরজাহান একাকী অনশন চালিয়ে যাচ্ছে।




কাকড়াজান ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান দুলাল হোসেন বলেন, ‘বিষয়টি জেনেছি। দুই পক্ষকে সমঝোতায় সমাধানের চেষ্টা করা হবে।
সখীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ রেজাউল করিম বলেন, ‘ঘটনাটা আমার জানা নেই। তবে মেয়েটি যদি আইনের সাহায্য চায়, তাহলে তাকে আইনগত সহায়তা দেওয়া হবে।’

ব্রেকিং নিউজঃ