সখীপুরে নেই গাইনীসহ ৯ কনসালটেন্ট চিকিৎসক

67

মোস্তফা কামাল, সখীপুর ॥
টাঙ্গাইলের সখীপুর উপজেলায় অবস্থিত ৫০ শয্যা বিশিষ্ট স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এক বছর ধরে গাইনী কনসালটেন্ট নেই। তাই উপজেলার গর্ভবতী মায়েদের একমাত্র ভরসা এখন প্রাইভেট হাসপাতাল। এছাড়া অর্থোপেডিক সার্জারী, কার্ডিওলজি, শিশু (চাঃদাঃ), এমও হোমিও, চর্ম ও যৌন, চক্ষু, নাক, কান, গলা ও এ্যানেসথেশিয়া কনসালটেন্ট চিকিৎসক নেই র্দীঘদিন ধরে। চিকিৎসা নিতে এসে চিকিৎসক না পেয়ে বাড়ি ফিরে যাচ্ছে হাজারো রোগী।
সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, উপজেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে প্রতিদিন শতশত রোগী চিকিৎসা নিতে আসে সখীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে। বিশেষ করে গর্ভবতী মায়েরা প্রতি মাসেই আসে তাদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করতে। গাইনী কনসালটেন্ট না থাকায় চিকিৎসা না নিয়ে হাসপাতাল ত্যাগ করছেন তাঁরা। বাধ্য হয়েই মায়েরা প্রাইভেট হাসপাতালের স্মরণাপন্ন হচ্ছে। অসহায় ও গরীব মায়েরা চলে যায় টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতাল ও বিভিন্ন ক্লিনিকগুলোতে।
এছাড়া আরও অন্যান্য ৮টি বিষয়ের কনসালটেন্ট না থাকায় অনেক সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছেন উপজেলার দূরদূরান্ত থেকে আসা রোগীরা। অর্থোপেডিক সার্জারী, কার্ডিওলজী, শিশু (চাঃদাঃ), এমও হোমিও, চর্ম ও যৌন, চক্ষু, নাক, কান গলা ও এ্যানেসথেশিয়া কনসালটেন্ট কবে আসবে এমন প্রশ্নের জবাব দিতে পারছেন না হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।
এ বিষয়ে সখীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মোহাম্মদ আব্দুস সোবাহান টিনিউজকে বলেন, প্রতি মাসেই চাহিদা পাঠাচ্ছি। কিন্তু চাহিদা মোতাবেক কোন কনসালটেন্ট আসছে না এই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে। এই উপজেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে প্রতিদিন শতশত রোগী এখানে চিকিৎসা নিতে আসেন তাই কনসালটেন্ট চিকিৎসক খুবই প্রয়োজন।

ব্রেকিং নিউজঃ