সখীপুরে কলেজ ছাত্র হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন

55

সখীপুর প্রতিনিধি॥
টাঙ্গাইলের সখীপুরে সরকারি সা’দত কলেজের মেধাবী ছাত্র মাজহারুল হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন করা হয়েছে। শনিবার (১৭সেপ্টেম্বর) বিকাল চারটায় এলাকাবাসীর উদ্যোগে উপজেলার মোখতার ফোয়ারা চত্বরে এলাকাবাসীসহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার পাঁচ শতাধিক মানুষ অংশ নেন।

মানব বন্ধনে বক্তব্য রাখেন, ২নং বহেড়াতৈল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ ওয়াদুদ হোসেন, কাকড়াজান ইউনিয়নের চেয়ারম্যান দুলাল হোসেন, ডাঃ আনোয়ার হোসেন, উপজেলা কৃষক লীগের সাবেক সভাপতি মজিবর রহমান মজিদ, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি কামরুল হাসান, কালিয়ান বাজার বণিক সমিতির সাবেক সভাপতি আতিকুজ্জামান সবুজ, ইউপি সচিব আনোয়ার হোসেন, কৃষক শ্রমিক জনতালীগ নেতা আশিক জাহাঙ্গীর, আসলাম শিকদার নোবেল, অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্য জহিরুল ইসলাম গোলাপ, স্থানীয় মহিলা ইউপি সদস্য স্বপ্না আক্তার ও রমেছা আক্তার, ইউপি সদস্য উজ্জ্বল হোসাইন, আনিছুর রহমান, রফিকুজ্জামান রতন, দুলাল হোসেন, সাবেক ইউপি সদস্য আজিজুল ইসলাম, নিহত মাজহারুলের চাচাতো ভাই মামুন শিকদার, উপজেলা যুবলীগের সদস্য আজাদ রানা, ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক রাসেল আল মামুন প্রমুখ।

বক্তারা এসময় বলেন, সরকারি সা’দত কলেজের মেধাবী ছাত্র মাজহারুলের হত্যাকারীদের দ্রুত গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে হবে। নিহতের বাবা আবদুল মালেক মিয়া বলেন, আমার ছেলে কখনো অন্যায়কে প্রশ্রয় দেয়নি। আর এলাকার মেয়েদের উত্যক্ত করার প্রতিবাদ করতে গিয়ে তাকে প্রাণ হারাতে হলো। মাজহারুলের মতো আর কোনো ছেলেক যেন এ করুণ পরিণতির শিকার হতে না হয়। আর কোনো মা- বাবাকে যেনো এভাবে সন্তান হারাতে না হয় সে জন্য আমি
সরকারের কাছে আমার ছেলে হত্যার দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি চাই।

উল্লেখ্য, উপজেলার কালিয়ান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাশে একটি মাঠে গত শুক্রবার (৯ সেপ্টেম্বর) বিকেলে ওই এলাকায় বিবাহিত বনাম অবিবাহিতদের মধ্যে একটি ফুটবল খেলা অনুষ্ঠিত হয়। কয়েকজন বখাটে খেলা দেখতে আসা এলাকার মেয়েদের নানাভাবে উত্যক্ত করে। এ সময় মাজহারুল তাদের উত্যক্ত করতে নিষেধ করলে ঘটনা স্থলেই দোহানীপাড়ার বখাটে ফরিদ, ইয়ারুল ও তার সহযোগীরা তাকে কিল, ঘুষি মারে।

এ ঘটনার সূত্রধরে খেলা শেষে বাড়ি ফেরার পথে ইয়ারুল ইসলাম (১৮), ছাব্বির আহমেদ (১৭) সহ সাত-আট জন মিলে দেশীয় অস্ত্র লোহার রড ও দা দিয়ে মাজহারুলকে বেধড়ক মারধর করে। এ সময় চিৎকার শুনে তার বাবা ও অন্যান্যরা মাজহারুলকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে সখীপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। কর্তব্যরত ডাক্তাররা তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে টাঙ্গাইল
জেনারেল হাসপাতালে পাঠায়। পরে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকার নিউরো সাইন্স হাসপাতালে প্রেরণ করেন। সেখানে চিকিৎসারত অবস্থায় সোমবার (১২ সেপ্টেম্বর) রাত প্রায় একটার দিকে মাজহারুলের মৃত্যু হয়।

মাজহারুল কালিয়ান দক্ষিণ পাড়া এলাকার আবদুল মালেক মিয়ার ছেলে এবং সরকারি সা’দত কলেজের অনার্স প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী। এ ঘটনায় সাত জনের নাম উল্লেখ করে সখীপুর থানায় মামলা দিয়েছে নিহতের বাবা আবদুল মালেক মিয়া।

 

 

 

ব্রেকিং নিউজঃ