সোমবার, সেপ্টেম্বর 21, 2020
Home অর্থ ও ব্যবসা রমজানে টাঙ্গাইলে সঙ্কট নেই তবুও বেড়েছে খেঁজুরের দাম

রমজানে টাঙ্গাইলে সঙ্কট নেই তবুও বেড়েছে খেঁজুরের দাম

ফাহাদ শাওন ॥
শুরু হয়েছে পবিত্র মাস রমজান। তাই বাজারে ভোগ্যপণ্যের দাম ততোই বাড়ছে। দাম বাড়ার তালিকায় শীর্ষে আছে আলু, ছোলা, চিনি, বেগুন, লেবুসহ রোজার সময় প্রয়োজনীয় ভোগ্যপণ্য। এ তালিকা থেকে বাদ পড়ছে না মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশ থেকে কয়েক মাস আগে আমদানি হয়ে আসা খেঁজুরও।
মহানবী হযরত মুহম্মদ সাল্লালাহু তায়ালা আলাইহি ওয়াসাল্লাম ইফতারির শুরুতে খেঁজুর খেতেন- বিভিন্ন হাদিসে এমন তথ্য রয়েছে। ফলে রমজান মাসে সারাদিন রোজা পালনের পর খেঁজুর দিয়ে ইফতারি শুরু করাকে সুন্নতের অংশ হিসেবে পালন করেন মুসলমানরা। এতে বাংলাদেশসহ বিশ্বের মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশগুলোতে রমজানের সময় খেঁজুরের চাহিদা কয়েকগুণ বেড়ে যায়। সাধারণত সারা বছর বাংলাদেশে খেঁজুর আমদানি হলেও রমজানের আগে এর পরিমাণ বাড়ানো হয়। বাড়তি চাহিদার কথা বিবেচনায় প্রতিবছর রমজান শুরুর কয়েক মাস আগেই প্রয়োজনীয় খেঁজুর আমদানি করেন সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীরা। তবুও প্রতিবছরই রমজানে টাঙ্গাইল জেলায় খেঁজুরের দাম বাড়ানো হয়। রমজান মাসজুড়ে বাড়তি দামেই বিক্রি হয় এই ভোগ্যপণ্য। এবারও তার ব্যতিক্রম হয়নি। এক মাসে আন্তর্জাতিক বাজারে দাম বাড়ার অজুহাতে খেঁজুরের দাম দেশের বাজারে দুই দফা বাড়ানো হয়েছে। সর্বশেষ গত ১৬ মে সব ধরনের খেঁজুরের কেজিতে ১০ টাকা করে বাড়ানো হয়েছে। এর আগে এপ্রিল মাসের শেষদিকেও এ পণ্যের দাম কিছুটা বাড়ানো হয়েছিল। প্রতিবছরের মতো এবারের রমজানেও টাঙ্গাইলের বাজারগুলোতে খেঁজুরের দাম আরও বাড়ানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন খুচরা বিক্রেতা এবং ভোক্তারা।
টাঙ্গাইলের বিভিন্ন বাজার ঘুরে দেখা গেছে, সাধারণ মানের খেঁজুর বিক্রি কেজি প্রতি ১৩০-১৫০ টাকা, শুকনা খেঁজুর ১০০-১২০ টাকা, ভেজা খেঁজুর ৭৫-৮০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া আরব আমিরাতের ১ কেজি প্যাকেটের নাগাল খেঁজুর ২১০ টাকা, ইরানের মরিয়ম খেঁজুর কেজি প্রতি ৭০০-৭৮০ টাকা, বরই খেঁজুর ১৪০ টাকা, বাবরি খেঁজুর ৩৫০-৩৮০ টাকা, তিউনিসিয়ার খেঁজুর (সুপার খেঁজুর) ৭৩০-৭৫০ টাকা, সৌদি আরবের কেস খেঁজুর ১৫০-২৫০ টাকা, আরব আমিরাতের বারাকা খেঁজুর ১৩৫-২২০ টাকা, ইরাকের খেঁজুর ৭০-৯০ টাকা, ছোট খেঁজুর (ডাবাস) ১৭০-১৮০ টাকা এবং ১০ কেজি কার্টনের রেজিস খেঁজুর ১৪০০-১৫০০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।
এক মাসের মধ্যে দু’বার খেঁজুরের দাম বাড়ার কারণ হিসেবে ব্যবসায়ীরা টিনিউজকে বলেন, আন্তর্জাতিক বাজারে কিছুটা বাড়তি দামে বিক্রি হচ্ছে খেঁজুর। গত বছরের তুলনায় চলতি বছরে কম খেঁজুর আমদানি করা হয়েছে। ফলে দাম কিছুটা বেড়েছে।

ব্রেকিং নিউজঃ