মির্জাপুর উপনির্বাচনে আত্মবিশ্বাসী আওয়ামী লীগ ॥ চমক দেখাতে চায় জাপা

99

স্টাফ রিপোর্টার ॥
টাঙ্গাইল-৭ (মির্জাপুর) সংসদীয় আসনের উপনির্বাচনের প্রচার প্রচারণা জমে উঠেছে। আগামী রবিবার (১৬ জানুয়ারি) এ আসনের উপনির্বাচন ইভিএমের মাধ্যমে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। উপনির্বাচনে এমপি পদে অংশ নিচ্ছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত (নৌকা) প্রতিকের প্রার্থী খান আহমেদ শুভ, জাতীয় পার্টি মনোনীত (লাঙল) প্রতিকের প্রার্থী জহিরুল ইসলাম জহির, বাংলাদেশ ওয়ার্কার্স পার্টির গোলাম নওজব চৌধুরী, বাংলাদেশ কংগ্রেস পার্টির শ্রীমতি রুপা রায় চৌধুরী ও স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে জাপার সাবেক নেতা নুরুল ইসলাম।
গত চার বারের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আসনটিতে আওয়ামী লীগের প্রতিনিধিত্ব থাকায় দলের ভোট ব্যাংক এখন বিশাল। অপরদিকে কেন্দ্রীয় নির্দেশনা মোতাবেক ভোটের মাঠে নেই আওয়ামী লীগের শক্ত প্রতিপক্ষ বিএনপি মনোনীত বা বিএনপি ঘরনার কেউ। তবে যে সকল দল বা প্রার্থী এই নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন তাদের জয়ের পরিসংখ্যান ও সাংগঠনিক সক্ষমতা বিবেচনায় আসনটিতে আওয়ামী লীগের প্রার্থী এগিয়ে থাকলেও চমক দেখাতে মাঠে তৎপর জাতীয় পার্টি মনোনীত প্রার্থী জহিরুল ইসলাম জহির। তিনি জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য এবং আসনটি থেকে তিনি ইতিপূর্বে নির্বাচন করেছেন। এছাড়া আসনটিতে স্বল্প হলেও একটি ভোট ব্যাংক রয়েছে জাতীয় পার্টির।
এদিকে সম্প্রতি উপজেলার ৮টি ইউপিতে অনুষ্ঠিত ভোটে দলীয় ৫ প্রার্থীর শোচনীয় পরাজয় কিছুটা নেতিবাচক প্রভাব ফেলেছে দলে। যদিও দলীয় নেতাদের দাবি, এমপি নির্বাচনে মানুষ প্রতীককে বেশি গুরুত্ব দিবেন। কিন্তু ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বিষয়টা নানা কারণে ব্যতিক্রম।
আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী টাঙ্গাইল জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য খান আহমেদ শুভ নৌকার জয় ধারাবাহিকতা রাখতে নিয়মিতই কর্মী সমাবেশ, মতবিনিমিয় সভার মাধ্যমে জনমত তৈরির চেষ্টা করছেন। এক্ষেত্রে উপজেলা আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগী অঙ্গসংগঠনের সমর্থন এবং উপস্থিতি পাচ্ছেন তিনি। এছাড়া আওয়ামী লীগের জেলা ও কেন্দ্রীয় পর্যায়ের নেতৃবৃন্দও সশরীরে উপস্থিত থেকে নৌকার সমর্থন যোগাতে চেষ্টা করছেন।
অপরদিকে অন্যান্য প্রার্থী বিশেষ করে জাতীয় পার্টি মনোনীত প্রার্থী জহিরুল ইসলাম জহিরও নিয়মিত গণসংযোগ করে যাচ্ছেন। ভোটের মাঠে বিএনপি না থাকলেও ইতিমধ্যে আওয়ামী লীগ প্রার্থীর বিপরীতে শক্ত প্রার্থী হিসেবে আলোচনায় চলে এসেছেন তিনি।
আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী খান আহমেদ শুভ টিনিউজকে বলেন, উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্যদিয়ে দলীয় নেতাকর্মী ও সাধারণ মানুষ নৌকার প্রচারণায় অংশ নিচ্ছেন। আগামী (১৬ জানুয়ারি) নৌকার বিজয় হবে ইনশাআল্লাহ্।
জাতীয় পার্টি মনোনীত জহিরুল ইসলাম জহির টিনিউজকে বলেন, যদি ভোট সুষ্ঠু ও অবাধ হয়, মানুষ যদি ভোট কেন্দ্রে যেতে পারে। তবে জয় তারই হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি। নির্বাচনী প্রচারণায় নেমে সাধারণ ভোটারদের ব্যাপক সাড়া পাচ্ছেন বলে জানান তিনি।

 

ব্রেকিং নিউজঃ