মির্জাপুরে ২০৮ পূজামন্ডপে চলছে শারদীয় দুর্গাপূজার প্রস্তুতি

11

জাহাঙ্গীর হোসেন, মির্জাপুর ॥
টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে এ বছর দানবীর রণদা প্রসাদ সাহার নিজ বাড়ির পূজামন্ডপসহ ২০৮ পূজামন্ডপে শারদীয় দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হবে। এসব পূজামন্ডপে এখন পূজা আয়োজনের প্রস্তুতি চলছে। প্রশাসনের পক্ষ থেকেও পূজারীদের নিয়ে সভা করে প্রস্তুতির কাজ সরকারের দেয়া শর্ত মেনে এগিয়ে নিতে বলা হয়েছে। এ বছর উপজেলার ১টি পৌরসভা ও ১৪টি ইউনিয়নে এশিয়া খ্যাত কুমুদিনী হাসপাতালের প্রতিষ্ঠাতা দানবীর রণদা প্রসাদ সাহার নিজ বাড়ির পূজামন্ডপসহ ২০৮ পূজামন্ডপে শারদীয় দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হবে। এই লক্ষকে সামনে রেখে এখন করোনা ভাইরাস পরিস্থিতিতে সরকারের দেয়া শর্ত মেনে পূজারীগণ তাদের প্রস্তুতির কাজ করছে। এখন প্রতিটি মন্ডপে প্রতিমা তৈরির কাজ চলছে। মির্জাপুর পৌর এলাকায় সর্বাধিক ৪৪ পূজা মন্ডপে এ বছর দুর্গা পূজা অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়া মহেড়া ১১, জামুর্কী ২৫, ফতেপুর ১৬, বানাইল ১৭, আনাইতারা ২, উয়ার্শী ১৩, ভাতগ্রাম ২৪, বহুরিয়া ১০, গোড়াই ১৭, আজগানা ২, তরফপুর ৬, বাশতৈল ৩, লতিফপুর ১৫ এবং ভাওড়া ইউনিয়নে ৩টি পূজামন্ডপে শারদীয় দুর্গা পুজা অনুষ্ঠিত হবে।
এদিকে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের সর্ববৃহৎ ধর্মীয় অনুষ্ঠান শারদীয় দূর্গাপূজাকে সামনে রেখে ইতিমধ্যে উপজেলা পরিষদ ও মির্জাপুর থানার উদ্যোগে পৃথক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় পুজারীদের প্রস্তুতি সম্পর্কে বিস্তারিত খোঁজখবর নেয়া হয়।
বাংলাদেশ হিন্দু বৈধ্য খ্রীষ্টান ঐক্য পরিষদ মির্জাপুর উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক নিরঞ্জন পাল টিনিউজকে বলেন, এ বছর করোনাকালে শারদীয় দুর্গাপূজার প্রস্তুতি এগিয়ে চলছে। সরকারের দেয়া শর্ত মেনেই আমরা পূজা আয়োজনের কাজ এগিয়ে নিচ্ছি।
বাংলাদেশ পুজা উদযাপন পরিষদ মির্জাপুর উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক প্রমথেশ গোস্মামী শংকর টিনিউজকে বলেন, আমরা পূজারীদের নিয়ে একাধিক সভা করেছি। করোনা মহামারির কারণে সরকারের দেয়া সব শর্ত উপজেলার প্রতিটি পূজামন্ডপের পূজারীদের নিকট পৌছে দিয়েছি।

ব্রেকিং নিউজঃ