মির্জাপুরে ভাতাভোগীদের টাকা গায়েবের অভিযোগ!

121

স্টাফ রিপোর্টার ॥
টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে বিধবা, প্রতিবন্ধী, বয়স্ক ও শিক্ষাউপবৃত্তির ১৩৬ ভাতাভোগীর একাউন্ট থেকে টাকা গায়েব হওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এতে ভাতাভোগীদের মধ্যে চরম হতাশা বিরাজ করছে। টাকা গায়েব হওয়ার ঘটনায় সমাজসেবা অফিসের কর্মকর্তা-কর্মচারী ও নগদ (মোবাইল ব্যাংক) মাঠকর্মীদের দোষারোপ করছেন ভুক্তভোগীরা।
মির্জাপুর উপজেলা সমাজসেবা অফিস সূত্রে জানা যায়, উপজেলায় ৪টি ক্যাটাগরিতে মোট ২১ হাজার ৯২০ জন ভাতাভোগী রয়েছেন। এরমধ্যে ৩৬ জনের একাউন্ট থেকে টাকা গায়েব ও আরো ১০০ জনের একাউন্টে ভুল নাম্বারসহ নানা সমস্যার কারণে টাকা উত্তোলন করতে পারছেন না ভাতাভোগীরা। ভাতাভোগী হাজী মো. আব্দুল লতিফ টিনিউজকে অভিযোগ করে বলেন, আমি সমাজসেবা অফিসে একাউন্ট থেকে টাকা উঠাতে যাই। কিন্তু যাওয়ার পর কর্মকর্তা আমাকে বলেন আমার একাউন্ট থেকে টাকা উঠানো হয়েছে। অথচ টাকা উঠানোর ব্যাপারে আমি কিছুই জানিনা।
হাজী মো. নুরুল ইসলাম নামের আরেক ভাতাভোগী টিনিউজকে বলেন, টাকা গায়েব হওয়ার অভিযোগ নিয়ে সমাজসেবা অফিসে গেলে ওখানকার লোকজন বলেন একাউন্ট থেকে আমি না হয় আমার পরিবারের কোনো সদস্য টাকা উঠিয়েছি। কিন্তু আমরাতো টাকা কিভাবে উঠাতে হয় সেটাই জানিনা। পরে তারা বলেন, একাউন্ট থেকে টাকা উঠানো হয়ে গেছে এটি আর ফেরত পাবেন না।
এ ব্যাপারে মির্জাপুর উপজেলা সমাজসেবা অফিসার খাইরুল ইসলাম টিনিউজকে বলেন, বিষয়টি সমাজসেবা অধিদপ্তরে জানানো হয়েছে। বাংলাদেশ ব্যাংক, সমাজসেবা অধিদপ্তর ও নগদ থেকে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তারা বিষয়টি খতিয়ে দেখছেন এবং যদি কেউ এ ঘটনা বা প্রতারণার সাথে জড়িত থাকে তাদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় পর্যায় থেকে ব্যবস্থা নেয়া হবে। যারা প্রতারণার শিকার হয়েছেন তাদের ব্যাপারে সমাজসেবা অধিদপ্তর পরবর্তী করণীয় নির্ধারণ করছেন।

 

 

ব্রেকিং নিউজঃ