মির্জাপুরে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্রের পূজা মন্ডপ পরিদর্শন

233

1445517550স্টাফ রিপোর্টারঃ

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেছেন, সরকার স্থানীয় সরকার নির্বাচন দলীয়ভাবে করে নিজেদের প্রার্থীদের বিজয়ী করার কৌশল নিয়েছেন। স্থানীয় সরকার নির্বাচন দলীয়ভাবে করার মানেটা হলো প্রশাসনকে জানিয়ে দেয়া যে নৌকা মার্কা পাস করিয়ে দিতে হবে। আর এটি হবে বাকশাল কায়েমের আরেকটি কৌশল। স্থানীয় সরকার নির্বাচন দলীয়ভাবে হলে জনগণ ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারবে না। নির্বাচনের আগে সরকার দলের প্রার্থীর বিপক্ষে যারা থাকবেন তাদের অনেকেই গ্রেফতার হবেন। সুতরাং এই নির্বাচন হবে বাকশাল কায়েমের আরেকটা কৌশল। স্থানীয় সরকার নির্বাচন দলীয়ভাবে হলে জনগণ ভোটও দিতে পারবে না এবং সেখানে দাঙ্গা, মারামারি হবে। অতিমাত্রায় মামলা মোকদ্দমা হবে। নির্বাচনের আগে অন্য দলের প্রার্থীরা গ্রেপ্তার হবেন।
বৃহস্পতিবার বিকেলে টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে দানবীর রণদা প্রসাদ সাহার বাড়ির পূজা মণ্ডপ পরিদর্শনে এসে স্থানীয় সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন।
সারা দেশে উৎসব মুখর পরিবেশে দুর্গাপূজা পালনের কথা স্বীকার করে বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘ধর্ম যার যার উৎসব সবার’ এতে সরকারের কোন কৃতিত্ব নেই। এটা এদেশের মানুষের একে অপরের প্রতি সম্প্রীতির যে বন্ধন রয়েছে তারই ধারাবাহিকতা। পরে তিনি মির্জাপুর গ্রামের বিভিন্ন পূজা মণ্ডপ ঘুরে দেখেন এবং হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের খোঁজ-খবর নেন।
এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন মির্জাপুর উপজেলা বিএনপির সভাপতি সাবেক সাংসদ আবুল কালাম আজাদ সিদ্দিকী, পৌর বিএনপির সভাপতি হযরত আলী মিঞা, ঢাকা উত্তর বিএনপির সভাপতি কফিল উদ্দিন, বিএনপি নেতা আক্তার হোসেন, মির্জাপুর উপজেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক শফিকুল ইসলাম ফরিদ, উপজেলা যুবদলের সভাপতি গোলাম মোস্তফা জীবনসহ উপজেলা ও পৌর বিএনপি, যুবদল ও ছাত্রদলের বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী।
এদিন দুপুরে কুমুদিনী কমপ্লেক্সে পৌঁছালে তাকে স্বাগত জানান কুমুদিনী কল্যাণ সংস্থার ব্যবস্থপনা পরিচালক রাজীব প্রসাদ সাহা, পরিচালক ডা. দুলাল চন্দ্র পোদ্দার প্রমুখ।

ব্রেকিং নিউজঃ