মির্জাপুরে বাস-লেগুনার মুখোমুখি সংর্ঘষে চালকসহ ৪ জন নিহত

91

21মির্জাপুর সংবাদদাতাঃ
ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের মির্জাপুর উপজেলার পোষ্টকামুরী চড়পাড়া নামক স্থানে বাস ও লেগুনার মুখোমুখি সংঘর্ষে চালকসহ ৪জন নিহত হয়েছেন। নিহতরা হলো- মির্জাপুর বাজারের বি এস এন্টারপ্রাইজের মালিক বিপুল সাহার লেগুনার চালক মির্জাপুর উপজেলার আন্ধরা গ্রামের দিলীপ (৪৮), উপজেলার ফতেপুর ইউনিয়নের শুভুল্যা গ্রামের মিজানুর রহমানের ছেলে সজল (২০), পোষ্টকামুরী চড়পাড়া গ্রামের আলমগীর হোসেনের ছেলে শিমূল (২২) ও সরিষাদাইড় গ্রামের পরেশ সরকারের ছেলে হারাধন সরকার (৩২)। সজল, শিমূল ও হারাধন বিএস এন্টারপ্রাইজের সেলস ও ডেলিভারি ম্যান।
জানা গেছে, বুধবার দুপুর পৌনে একটার দিকে মির্জাপুর বাজারের ব্যবসায়ী বিএস এন্টারপ্রাইজের মালিক বিপুল সাহার পোলার, প্রাণ, ডিপ্লোমা, এসিআই ও ভরসা ম্যাচ কোম্পানীর মাল নিয়ে উপজেলার জামুর্কী, পাকুল্যা বাজারসহ বিভিন্ন এলাকায় মাল বিক্রি করে মির্জাপুর সদরে ফিরে আসছিলো। পথিমধ্যে মহাসড়কের মির্জাপুর উপজেলা সদরের পোষ্টকামুরী চড়পাড়া নামক স্থানে পৌছালে ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা উত্তরবঙ্গগামী গ্রীণ ভয়েজ এন্টারপ্রাইজের (ঢাকা-মেট্রো-ব-১৪-৭৮৬৯) যাত্রীবাহি বাসের সাথে মুখোমুখি সংর্ঘষ বাধে। এতে ঘটনাস্থলেই লেগুনার চালকসহ তিনজন মারা যান। আহত অবস্থায় শিমূলকে মির্জাপুর কুমুদিনী হাসপাতালে নেয়া হলে সেখানে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন।

এ সময় মহাসড়কের উভয় পাশে কমপক্ষে চার কিলোমিটার জুড়ে যানজটের সৃষ্টি হয়। পরে মির্জাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাইন উদ্দিনের নেতৃত্বে থানা পুলিশ, গোড়াই হাইওয়ে পুলিশ, মির্জাপুরের ট্রাফিক পুলিশ ও মির্জাপুর ফায়ার স্টেশনের লোকজন দুর্ঘটনা কবলিত বাস ও লেগুনা মহাসড়কের উপর থেকে সরিয়ে নিলে বেলা দেড়টার দিকে মহাসড়কে যান চলাচল শুরু হয়।
মির্জাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাইন উদ্দিন সড়ক দুর্ঘটনায় চারজন নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। দুর্ঘটনা কবলিত বাস ও লেগুনা পুলিশের হেফাজতে রাখা হয়েছে। আর বাসের চালক পলাতক রয়েছে। এ ঘটনায় মামলা হয়েছে।

ব্রেকিং নিউজঃ