মির্জাপুরে দুটি ট্রেনে পাথর নিক্ষেপ ॥ চালকসহ আহত ৬

0 110

স্টাফ রিপোর্টার ॥
টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে ঢাকাগামী মৈত্রী এক্সপ্রেস ও খুলনাগামী চিত্রা এক্সপ্রেস ট্রেনে পাথর নিক্ষেপের ঘটনা ঘটেছে। এতে মৈত্রী এক্সপ্রেসের চালকসহ ৬ যাত্রী আহত হয়েছেন। শুক্রবার (২৪ মার্চ) দুপুরে ও রাতে মির্জাপুর ট্রেনস্টেশন ও রশিদ দেওহাটা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এই ঘটনায় আহত মৈত্রী এক্সপ্রেসের চালক তৌহিদুজ্জামান ঢাকায় লিখিত অভিযোগ দিলে শনিবার (২৫ মার্চ) ঢাকা ও টাঙ্গাইল থেকে রেলওয়ে পুলিশের কর্মকর্তারা মির্জাপুরে ঘটনাস্থল পরিদর্শনে আসেন বলে জানিয়েছেন মির্জাপুর স্টেশন মাস্টার কামরুল হাসান।




ঢাকা থেকে খুলনাগামী চিত্রা এক্সপ্রেস ট্রেনে পাথরের আঘাতে আহত এক যাত্রী সিরাজগঞ্জের কামারখন্দ উপজেলার ইলিয়াস সরকার। তিনি জানান, সন্ধা সাড়ে সাতটার দিকে তিনি ঢাকার কমলাপুর থেকে সিরাজগঞ্জের উদ্দেশ্যে ওই ট্রেনে উঠেন। রাত আনুমানিক ৯টার দিকে মির্জাপুর ট্রেনস্টেশনে পৌছার ঠিক আগ মুহুর্তে আচমকা পাথর এসে তার কপালে লেগে রক্ত ঝরতে শুরু করে। পাথরের আঘাতে তিনিসহ ট্রেনের আরো ৪ জন যাত্রী আহত হন বলে তিনি জানান। ট্রেনে অবস্থানকারী পাকশী রেলওয়ে পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) নাজিউর রহমান এই ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আহতদের ট্রেনেই প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।




এর আগে একই দিন বেলা তিনটার দিকে কলকাতা থেকে ঢাকাগামী মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেনটি মির্জাপুর স্টেশন এলাকায় পৌছার পর দুর্বৃত্তরা ওই ট্রেনে পাথর ছুরে। এই ঘটনায় ওই ট্রেনের চালক তৌহিদুজ্জামান গুরুতর আহত হন বলে মির্জাপুর ট্রেনস্টেশনের স্টেশন মাস্টার কামরুল হাসান জানান। তিনি জানান শনিবার তার চোখের অপারেশন হওয়ার কথা।




এদিকে ট্রেনে পাথর নিক্ষেপের খবর পেয়ে শনিবার ঘটনাস্থল পরিদর্শনে আসেন ঢাকা রেলওয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ ফেরদৌস আহমেদ, টাঙ্গাইল রেলওয়ে পুলিশের এএসআই ফজলুর রহমান ও মির্জাপুর থানা পুলিশ। তারা মির্জাপুর পৌরসভার কাউন্সিলর আলী আজম সিদ্দকী, হাফিজুর রহমান, রওশনারা বেগম, সাবেক কাউন্সিলর সাজুসহ স্থানীয় কয়েকজন তরুন যুবকদের নিয়ে সচেতননামূলক বৈঠক করেন।
ঢাকা রেলওয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ ফেরদৌস আহমেদ বলেন, এ ঘটনায় একটি সাধারণ ডাইরি করা হয়েছে বলে তিনি জানিয়েছেন।

 

Leave A Reply

Your email address will not be published.

ব্রেকিং নিউজঃ