মির্জাপুরে গোড়াই-সখীপুর-ঢাকা রোডে ৩৫ কি.মি সড়কে খানাখন্দ

6

স্টাফ রিপোর্টার ॥
ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের আঞ্চলিক রোড মির্জাপুরের গোড়াই-সখীপুর-ঢাকা রোডের ৩৫ কি. মি. রাস্তায় খানা-খন্দক সৃষ্টি হয়ে বেহাল অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। ভাঙ্গা রাস্তায় জলাবদ্ধতা, খানা খন্দক ও ঝুঁকিপুর্ণ রাস্তায় যানবাহন চলাচল করায় যাত্রীদের চরম দুর্ভোগের শিকার হতে হচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। গোড়াই-সখীপুর-ঢাকা রোডে নিয়মিত চলাচলকারী যাত্রীরা দুর্ভোগের চিত্র তুলে ধরেন।
সড়ক ও জনপথ বিভাগ মির্জাপুর উপবিভাগীয় অফিস সূত্র জানায়, সড়ক ও জনপথ বিভাগের অধিনে গোড়াই-সখীপুর-ঢাকা রোড একটি গুরুত্বপুর্ণ আঞ্চলিক রাস্তা। পাহাড়ি এলাকাবাসির চলাচলের সুবিধার্থে ৮০ দশকে রাস্তাটি সরু আকারে নির্মিত হয়। এলাকাবাসির দাবীর প্রেক্ষিতে বিগত ২০১৩-২০১৪ অর্থ বছরে প্রায় ২৫ কোটি টাকা ব্যয়ে রাস্তাটি প্রশস্ত ও সংস্কার করা হয়। গত কয়েক বছরের ব্যবধানে রাস্তাটির বেহাল অবস্থা হয়েছে।
আজগানা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রফিকুর ইসলাম সিকদার এবং বাঁশতৈল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আতিকুর রহমান মিল্টন টিনিউজকে জানান, মির্জাপুর, সখীপুর, বাসাইল, ঘাটাইল, মধুপুর, জামালপুর শেরপুর, ময়মনসিংহ, ভালুকা, ত্রিশাল, কালিয়াকৈর, শ্রীপুর ও গাজীপুর জেলার শতশত যানবাহন নিয়মিত চলাচল করে আসছে। বৃহত্তর পাহাড়ি এলাকার চলাচলের একমাত্র রাস্তাটির বিভিন্ন অংশে ভেঙ্গে খানা খন্দক ও জলাবদ্ধতা সৃষ্টি এবং বেহালদশা হওয়ায় চলাচলের ক্ষেত্রে হাজার হাজার যাত্রীদের চরম দুর্ভোগের শিকার হতে হচ্ছে। রাস্তার আশপাশে রয়েছে বৃহৎত্তম হাটুভাঙ্গা, বাঁশতৈল, তক্তারচালা, কাইতলা, গারোবাজার, দেওদিঘী, সাগরধিঘী, কচুয়া হাট-বাজার এবং শতাধিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। এই রাস্তার হাটুভাঙ্গা, বেলতৈল, হোসেন মার্কেট, নয়াপাড়া, পেকুয়া, তক্তারচালা, দেওদিঘী, সখীপুর, গারোবাজারসহ বিভিন্ন অংশ থেকে ঢালাই উঠে বড় বড় গর্ত, খানা খন্দক হয়ে জলাবদ্ধতায় সৃষ্টি হওয়ায় চলাচলের অনুপযোগী। ভাঙ্গাচোরা ও খানা খন্দক রাস্তায় যানবাহন আটকে দুর্ঘটনার সৃষ্টি হচ্ছে। তারা ৩৫ কি. মি. রাস্তা দ্রুত সংস্কারের দাবী জানিয়েছেন।
এ ব্যাপারে টাঙ্গাইল সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মনিরুজ্জামান মনির টিনিউজকে বলেন, টানা বৃষ্টি ও বন্যা জনিত কারণে গোড়াই-সখীপুর-ঢাকা রোড ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। প্রকল্প তৈরী করে অর্থ বরাদ্ধ চেয়ে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। অর্থ বরাদ্ধ পেলেই রাস্তাটি দ্রুত সংস্কার করা হবে।

ব্রেকিং নিউজঃ