মির্জাপুরে কু-প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় বাড়ি ছাড়া এক পরিবার

1,017

স্টাফ রিপোর্টার ॥
টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে মাদক ব্যবসায়ীর কু-প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় এক পরিবারকে হুমকি-ধামকি দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। পরিবারটি এখন বাড়ি ছেড়ে অন্যের বাড়িতে আশ্রয় নিয়েছেন। এ ঘটনায় মির্জাপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দেয়া হয়েছে।




জানা গেছে, মির্জাপুর পৌরসভার ৭ নম্বর ওয়ার্ডের মুসলিমপাড়া এলাকার মানিক সর্দার তার স্ত্র্রী ও সন্তান নিয়ে গত এক বছর ধরে একই এলাকার নুরুল হকের ছেলে রিপন মিয়ার ভাড়া বাসায় বসবাস করছেন। মানিক সর্দার একজন রাজমিস্ত্রি। বাড়ির মালিক রিপন মিয়া দীর্ঘদিন ধরে মানিকের স্ত্রীকে মুঠোফোনসহ বিভিন্নভাবে কু-প্রস্তাব দিয়ে আসছিলো। লোকলজ্জার ভয়ে তিনি এ বিষয়টি চেপে যান। গত ১৬ নভেম্বর রিপন কৌশলে অন্য এক ভাড়াটিয়াকে তার স্ত্রীর সাথে অন্যত্র পাঠান। এই সুযোগে রিপন বিকেলে মানিক সর্দারের ঘরে প্রবেশ করে তার স্ত্রীকে জাবরাইয়া ধইরা জোরপূর্বক ধর্ষনের চেষ্টা চালায়। এসময় গৃহবধূর ডাকচিতকারে স্থানীয় লোকজন আসলে রিপন চলে যায়। পরে স্বামী বাড়িতে আসলে বিষয়টি অবহিত করেন। ঘটনাটি জানার পর মানিক সর্দার বাসা ছেড়ে চলে আসার সিদ্ধান্ত নিলে রিপন তাদের নানা ধরনের হুমকি ধামকি প্রদর্শন করেন এবং বাসা থেকে বের করে দেন। বাসার আসবাবপত্র বের করতে চাইলে রিপন তাদের কাছে মোটা অংকের টাকা দাবি করেন। গত তিনদিন যাবত ওই পরিবারটি অন্য বাড়িতে মানবেতর জীবন-যাপন করছেন। এ ঘটনায় মানিকের স্ত্রী বাদী হয়ে সোমবার মির্জাপুর থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন।
রিপন মিয়া মির্জাপুর বাবুবাজারে ইলেকটিক ব্যবসার আড়ালে মাদকের ব্যবসা করেন বলে স্থানীয় লোকজন অভিযোগ করেছেন।




মানিক সর্দার জানান, বিষয়টি জানার পর বাসা ছেড়ে চলে আসতে চাইলে রিপন নানা ধরনের হুমকি দিচ্ছে। আসবাবপত্র আনতে দেয়নি। উল্টো আমাদের কাছে টাকা দাবি করছেন। পরিবার নিয়ে অন্যের বাড়িতে মানবেতন জীবন-যাপন করছেন বলে জানান।
অভিযুক্ত রিপন মিয়ার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমি মানিকের স্ত্রীকে কু-প্রস্তাব দেয়নি। এছাড়া তার ঘরে গিয়ে ধর্ষনের চেষ্টাও করিনি। তারা নিজেরাই ঘরে তালা লাগিয়ে বাসা ছেড়ে চলে গেছে। মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত থাকার বিষয়ে বলেন, আমি মাদক বিক্রি করি না, তবে কেউ চাইলে আমি সংগ্রহ করে দেই।
মির্জাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ আবু সালেহ মাসুদ করিম অভিযোগ পাওয়ার কথা স্বীকার করে জানান, তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

 

ব্রেকিং নিউজঃ