মির্জাপুরে এমপির অর্থায়নে দুটি বেইলি ব্রিজ নির্মাণ

68

স্টাফ রিপোর্টার ॥
টাঙ্গাইল-৭ মির্জাপুর আসনের সংসদ সদস্য খান আহমেদ শুভ নিজ অর্থায়নে জনসাধারণের চলাচলের সুবিধার্থে দুটি বেইলি ব্রিজ নির্মাণ করে দিয়েছেন। তিনি উপজেলার মির্জাপুর-কামারপাড়া আঞ্চলিক সড়কের ভাওড়া ফতেপুর বাজার সংলগ্ন এবং পেকুয়া-পাথরঘাটা আঞ্চলিক সড়কের পেকুয়া দক্ষিণপাড়া পরিত্যাক্ত ব্রিজ দুটি ভেঙ্গে বেইলি ব্রিজ নির্মাণ করে দেন। দীর্ঘদিন ধরে ব্র্রিজ দুটি ভেঙ্গে থাকায় জনসাধারণের চলাচলে মারাত্মকভাবে বিঘিœত হচ্ছিল। ব্রিজ দুটি নির্মাণ হওয়ায় ওই এলাকার জনগণের মধ্যে স্বস্তি ফিরে এসেছে এবং নির্বিঘেœ যাতায়াত করতে পারছে বলে জানা গেছে।


(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

জানা গেছে, পাহাড়ি অঞ্চলের মানুষের উপজেলা সদরের সাথে যোগাযোগের সুবিধার্থে পেকুয়া-পাথরঘাটা রাস্তায় ১৯৯৮ সালে কেয়ার বাংলাদেশ প্রায় ১৫ লাখ টাকা ব্যয়ে ৪৪ ফুট দৈর্ঘ্যরে এই ব্রিজটি নির্মাণ করে। ব্রিজটি নির্মাণের পর উপজেলার প্রায় ১৫-২০ গ্রামসহ পার্শ্ববর্তী সখিপুর উপজেলা এবং ময়মনসিংহের কয়েকটি উপজেলার মানুষ এ সড়ক দিয়ে মির্জাপুর হয়ে বিভিন্ন গন্তব্যে চলাচল শুরু করে। ব্রিজটির ওপর দিয়ে ইটভাটার ইট, মাটি ও কয়লাভর্তি ট্রাক চলাচল করায় ভেঙ্গে পরিত্যাক্ত হয়ে পড়ে। এতে এলাকাবাসীকে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হয়।

এছাড়া মির্জাপুর-কামারপাড়া সড়ক দিয়ে উপজেলার দক্ষিণ মির্জাপুরের তিনটি ইউনিয়নের প্রায় ৩০টি গ্রামের লোকজন ছাড়াও পার্শ্ববর্তী ধামরাই ও সাটুরিয়া উপজেলার কয়েকটি গ্রামের লোকজন এই সড়ক দিয়ে উপজেলা সদরসহ বিভিন্ন গন্তব্যে চলাচল করে থাকে। সম্প্রতি সড়কটির ভাওড়া ফতেপুর বাজার সংলগ্ন ব্রিজটিও ভেঙ্গে পড়ে। এতে জনযানের চলাচল মারাতœকভাবে বিঘিœত হয়। এলাকাবাসী টাঙ্গাইল-৭ মির্জাপুর আসনের সংসদ সদস্য খান আহমেদ শুভর কাছে ব্রিজ দুটি নির্র্মাণের দাবি জানায়। তিনি ব্রিজ দুটি সরজমিন পরিদর্শন শেষে নিজ অর্থায়নে দুটি বেইলি ব্রিজ নির্মাণ করে দেন বলে উপজেলা প্রকৌশলী মো. আরিফুর রহমান নিশ্চিত করেছেন।
ভাওড়া ইউপি সদস্য মো. লিটন মিয়া জানান, ভাওড়া ফতেপুর বাজার সংলগ্ন পরিত্যাক্ত ব্রিজটি সম্পর্কে এলাকাবাসী গত দুই সপ্তাহ আগে খান আহমেদ শুভ এমপিকে জানান। তিনি দ্রুত সময়ের মধ্যে এই ব্রিজটি নির্মাণ করে দিবেন তা এলাকাবাসী চিন্তা করেননি। এলাকাবাসী তার কাছে চিরকৃতজ্ঞ।


(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

বাঁশতৈল ইউপির সদস্য আব্দুল মান্নান মিয়া জানান, পেকুয়া-পাথরঘাটা সড়কের পেকুয়া ব্রিজটি দীর্ঘদিন পরিত্যাক্ত ছিল। এমপি মহোদয়কে জানানোর পর দ্রুত সময়ের মধ্যে বেইলি ব্রিজ নির্মাণ করে দিয়েছেন। এতে জনদুর্ভোগ লাঘব হবে বলে তিনি জানান।
মির্জাপুর উপজেলা প্রকৌশলী মো. আরিফুর রহমান জানান, স্থানীয় সংসদ সদস্য খান আহমেদ শুভর অর্থায়নে এলজিইডি মির্জাপুর অফিস বেইলি ব্রিজ দুটি বাস্তবায়ন করেছেন।

টাঙ্গাইল-৭ মির্জাপুর আসনের সংসদ সদস্য খান আহমেদ শুভ জানান, ব্রিজ দুটি পরিত্যাক্ত হওয়ায় জনগনের চলাচলে কষ্ট হচ্ছিল। বিষয়টি জানার পর পৃথক স্থানে দুটি বেইলি ব্রিজ নির্মাণ করে দিয়েছেন বলে জানান।

 

ব্রেকিং নিউজঃ