মির্জাপুরে আওয়ামী লীগ নেতা জনিকে বহিষ্কার

201

স্টাফ রিপোর্টার ॥
টাঙ্গাইলের মির্জাপুর উপজেলার তরফপুর ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সম্পাদককে মারধরের অভিযোগে সাধারণ সদস্য পদ থেকে ইজ্জত আলী জনিকে বহিষ্কার করেছে মির্জাপুর উপজেলা আওয়ামী লীগ। মঙ্গলবার (২৫ জানুয়ারি) উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও সম্পাদক কর্তৃক স্বাক্ষরিত প্যাডে করা বহিষ্কারাদেশপত্র দেয়া হয়।
জানা যায়, গত (১৬ জানুয়ারি) টাঙ্গাইল-৭ (মির্জাপুর) উপনির্বাচনে নৌকার প্রার্থীর পক্ষে কাজ করায় তরফপুর ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সম্পাদককে বেধড়ক মারধর করে ইজ্জত আলী ও তার ১৫/১৬ জন সহযোগী। যে কারণে নির্বাচনে নৌকার কাঙ্খিত ভোটাররা ভোট দানে বিরত ছিলেন। যা আওয়ামী লীগের গঠনতন্ত্রের ৪৬ (ক) ও (ঠ) ধারা মোতাবেক শাস্তিযোগ্য অপরাধ বিধায় কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের সিদ্ধান্তনুযায়ী আওয়ামী লীগের সকল কর্মকাণ্ড, সদস্য পদসহ সকল পদ থেকে বহিষ্কার করা হয় ইজ্জত আলী জনিকে।
বহিস্কৃত ইজ্জত আলী জনি বলেন, বহিষ্কারাদেশের কোনো চিঠি আমি পাইনি। তবে তিনি দাবি করেন আমি উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-দপ্তর সম্পাদক। উপজেলা আওয়ামী লীগ আমাকে বহিষ্কার করতে পারে না। বহিস্কার করতে পারবে জেলা ও কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ।
এ ব্যাপারে বুধবার (২৬ জানুয়ারি) উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মীর শরীফ মাহমুদ টিনিউজকে জানান, আওয়ামী লীগ নেতাদেরকে মারধর ও সংগঠন বিরোধী কাজে জড়িত থাকায় তার বিরুদ্ধে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। ইতোপূর্বে উপজেলা আওয়ামী লীগের খসড়া কমিটিতে সহ-দপ্তর সম্পাদক থাকলেও বর্তমান কমিটিতে ইজ্জত আলী জনি উপজেলা আওয়ামী লীগের কমিটিতে নেই। বর্তমানে সহ-দপ্তর সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন মির্জাপুর পৌরসভার (সাবেক) কাউন্সিলর শহিদুল ইসলাম মাসুম।

 

 

 

 

 

ব্রেকিং নিউজঃ