মানুষের অধিকার আদায়ের জন্য এমপি হতে চাই- মুরাদ সিদ্দিকী

207

স্টাফ রিপোর্টার ॥
একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে টাঙ্গাইল-৫ (সদর) আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী জননেতা মুরাদ সিদ্দিকী বলেছেন, আমি আমার জন্য এমপি হতে চাই না। সাধারণ মানুষের অধিকার আদায়ের জন্য এমপি হতে চাই। আমাকে একটি বারের জন্য ভোট দিয়ে সুযোগ করে দেয়। আমি নির্বাচিত হওয়ার পরদিন থেকে কোন মহিলা স্কুল ও কলেজের সামনে কোন ইভটিজার দাঁড়াতে পারবে না। নির্বাচিত হওয়ার পর সমাজ থেকে আমি মাদক ব্যবসা, সন্ত্রাস, ভূমি দখল, বেকারত্ব দূর করবো। আমি সদর আসনের সার্বিক উন্নয়ন করবো।
বৃহস্পতিবার (২০ ডিসেম্বর) বিকেলে নাগরিক কমিটি আয়োজিত নির্বাচনী জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, আমি তিনবার নির্বাচনে পরাজিত হয়ে ব্যর্থতার মাঝেও সফলতা খুঁজে পাই। সোনাকে যেমন নাইট্রিক এসিডের মাধম্যে আগুনে পুড়ে তার খাটিত্ব প্রমাণ করতে হয়। ঠিক তেমনি আমি ভোটারদের ধারে ধারে ঘুরে আমার সততা ও নৈতিকতার প্রমাণ দিয়েছি। আপনারা ইতিপূর্বে যাদের ভোট দিয়ে নির্বাচিত করেছেন তারাই মাদক ব্যবসা, সন্ত্রাস, ভূমি দখল ও উন্নয়নের নামে লুটপাট করে আসছে। মাদক সেবন করে আমার আপনার সন্তানরা মাদকাসক্ত হচ্ছে। ফলে আমাদের পরিবার তথা সমাজের শান্তি নষ্ট করছে। আপনারা সরকার ও মার্কাকে ভোট দেন। নির্বাচিত হওয়ার পর তারাই সমাজের অস্ত্র ও মাদক ব্যবসায়ীদের আশ্রয় দেয়। সব ভুলের ক্ষমা হয়। কিন্তু মীর জাফরের কোন দিন ক্ষমা হয় না। তাই আপনারা সিদ্ধান্ত নেন আগামী সংসদ নির্বাচনে আপনারা কাকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করবেন।
আব্দুল হালিম তালুদারের সভাপতিত্বে জনসভায় আরও বক্তব্য রাখেন মুরাদ সিদ্দিকীর বড় ভাই মুক্তিযোদ্ধা বেলাল সিদ্দিকী, স্ত্রী নীহার সিদ্দিকী, মেয়ে ধ্রুপদী লতিফা সিদ্দিকী, মুক্তিযোদ্ধা শহিদুর রহমান বাবুল সিদ্দিকী, জেলা যুবলীগের সহসভাপতি আব্দুর রউফ রিপন, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা নওশাদ আহমেদ নবীন, শহর আওয়ামী লীগের সাবেক সহ-সভাপতি মাহমুদ মামুন খান, টাঙ্গাইল চেম্বার অব কমার্সের পরিচালক মোহাম্মদ আসাদুজ্জামান মনি আরজু, ছাত্র নেতা পারভেজ শহিদ প্রমুখ।

ব্রেকিং নিউজঃ