মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি প্রক্রিয়া শুরু

158

Vashani_SM_822089225স্টাফ রিপোর্টার :
মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০১৫-২০১৬ শিক্ষাবর্ষে প্রথমবর্ষ বিএসসি (ইঞ্জিনিয়ারিং), বিবিএ এবং বিএসসি (অনার্স) ও বি. ফার্ম কোর্সে ভর্তি প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। ইতোমধ্যে ৬ সেপ্টেম্বর থেকে ভর্তির আবেদন শুরু হয়েছে। ৩১ অক্টোবর রাত ১২ টা পর্যন্ত টেলিটকে এসএমএসের মাধ্যমে ভর্তির আবেদন করা যাবে। আগামী ২৭ নভেম্বর ‘এ’ ও ‘বি’ এবং ২৮ নভেম্বর ‘সি’ ও ‘ডি’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।
এ বছর চারটি ইউনিটের অধীনে মোট ১৫ টি বিভাগে ৭৮৫ টি আসনের জন্য এমসিকিউ পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠত হবে বলে বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা গেছে। ভর্তি সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য বিশ্ববিদ্যালয়ের নোটিশ বোর্ড ও ওয়েবসাইট www.mbstu.ac.bd এ পাওয়া যাবে। এছাড়া হটলাইন ০১৫৫৪৩২১১৮৭, ০১৭৮৯৮৭৬৭৮৪ এবং ০১৭৩৪১৮২২৭৭ -এ যোগাযোগ করা যাবে।

ইউনিট ও বিভাগঃ
‘এ’ ইউনিটের অধীনে তিনটি বিভাগ রয়েছে। বিভাগগুলো হলো, টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং (টিই) বিভাগ, ইনফরমেশন অ্যান্ড কমিউনিকেশন টেকনোলজি (আইসিটি) বিভাগ ও কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং (সিএসই) বিভাগ।
‘বি’ ইউনিটের অধীনে ছয়টি বিভাগ রয়েছে। বিভাগগুলো হলো, এনভায়রমেন্টাল সায়েন্স অ্যান্ড রিসোর্স ম্যানেজমেন্ট (ইএসআরএম) বিভাগ, ক্রিমিনোলজি অ্যান্ড পুলিশ সায়েন্স (সিপিএস) বিভাগ, ফুড টেকনোলজি অ্যান্ড নিউট্রিশনাল সায়েন্স (এফটিএনএস) বিভাগ, বায়োটেকনোলজি অ্যান্ড জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং (বিজিই) বিভাগ, ফার্মেসী বিভাগ ও বায়োকেমিস্ট্রি অ্যান্ড মলিকুলার বায়োলজি (বিএমবি) বিভাগ।
‘সি’ ইউনিটের অধীনে চারটি বিভাগ রয়েছে। বিভাগগুলো হলো, রসায়ন বিভাগ, গণিত বিভাগ, পদার্থ বিভাগ ও পরিসংখ্যান বিভাগ।
‘ডি’ ইউনিটের অধীনে দুইটি বিভাগ রয়েছে। বিভাগগুলো হলো, বিজনেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন বিভাগ ও অর্থনীতি বিভাগ।
আবেদনের ন্যূনতম যোগ্যতাঃ
২০১২ বা ২০১৩ সালে অনুষ্ঠিত এসএসসি/সমমান ও ২০১৪ বা ২০১৫ সালে অনুষ্ঠিত এইচএসসি/সমমান পরীক্ষায় উর্ত্তীণ ছাত্র-ছাত্রীরা আবেদন করতে পারবে। তবে উভয় পরীক্ষায় পৃথকভাবে ৪র্থ বিষয় ব্যতীত ন্যূনতম জিপিএ ৩.০০ এবং মোট ন্যূনতম জিপিএ ৬.৫০ থাকতে হবে। বিজ্ঞান বিভাগ থেকে উর্ত্তীণ ছাত্র-ছাত্রীরা সকল ইউনিট এবং বাণিজ্য ও মানবিক বিভাগ থেকে উর্ত্তীণ ছাত্র-ছাত্রীরা শুধুমাত্র ‘ডি’ ইউনিটে আবেদন করতে পারবে। ‘এ’ ইউনিটে ভর্তিচ্ছু প্রার্থীদের এইচএসসি/সমমান পরীক্ষায় পদার্থ ও গণিতে পৃথকভাবে ন্যুনতম জিপি ৩.০০ থাকতে হবে। ‘বি’ ইউনিটে ভর্তিচ্ছু প্রার্থীদের এইচএসসি/সমমান পরীক্ষায় রসায়ন ও জীব বিজ্ঞানে পৃথকভাবে ন্যূনতম জিপি ৩.০০ থাকতে হবে। ‘সি’ ইউনিটে ভর্তিচ্ছু প্রার্থীদের এইচএসসি/সমমান পরীক্ষায় পদার্থ, রসায়ন ও গণিতে পৃথকভাবে ন্যূনতম জিপি ৩.০০ থাকতে হবে।
ভর্তি পরীক্ষার নম্বর বন্টনঃ
প্রতিটি ইউনিটে ২০০ নম্বর থাকবে। এর মধ্যে ১০০ নম্বর থাকবে ভর্তি পরীক্ষার ১০০টি এমসিকিউ এর জন্য এবং অবশিষ্ট ১০০ নম্বরের মধ্যে এসএসসি পরীক্ষায় প্রাপ্ত জিপিএ হতে ৪০% (চতুর্থ বিষয়সহ) ও এইচএসসি পরীক্ষায় প্রাপ্ত জিপিএ হতে ৬০% (চতুর্থ বিষয়সহ) গণনা করা হবে। প্রতিটি ভুল উত্তরের জন্য ০.২৫ নম্বর মোট নম্বর থেকে কর্তন করা হবে।
‘এ’ ও ‘সি’ ইউনিটে ১০০ নম্বরের পরীক্ষায় ইংরেজিতে ১০, পদার্থ ৩০, রসায়ন ৩০ ও গণিতে ৩০ নম্বর থাকবে।
‘বি’ ইউনিটে ১০০ নম্বরের পরীক্ষায় ইংরেজিতে ১০, পদার্থ ২০, রসায়ন ৩৫ ও জীববিজ্ঞানে ৩৫ নম্বর থাকবে।
‘ডি’ ইউনিটে ১০০ নম্বরের পরীক্ষায় বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য ইংরেজিতে ৪০, পদার্থ ৩০, রসায়ন ৩০ ও গণিতে ৩০ নম্বর (পদার্থ, রসায়ন ও গণিতের মধ্যে যে কোন দুটি বিষয়ে উত্তর দিতে হবে), মানবিক বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য ইংরেজি ৪০, বাংলা ৩০, অর্থনীতি ৩০ ও পৌরনীতি ৩০ (অর্থনীতি ও পৌরনীতির মধ্যে যে কোন দুটি বিষয়ে উত্তর দিতে হবে) এবং বাণিজ্য বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য ইংরেজি ৪০, ব্যবসায় নীতি ও প্রয়োগ ৩০ ও হিসাব বিজ্ঞানে ৩০ নম্বর থাকবে।
সকল ইউনিটে পাশ নম্বর ৪০। এমসিকিউ পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষায় ১০০ নম্বরের প্রশ্নের উত্তরের জন্য ১.০০ ঘন্টা সময় বরাদ্ধ থাকবে।

ব্রেকিং নিউজঃ