মধুপুরে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা ভাংচুর লুটপাট ॥ আহত ২

114

untitled-1_64366_3মধুপুর প্রতিনিধিঃ
টাঙ্গাইলের মধুপুরের ধরাটি গ্রামে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা, ভাংচুর ও লুটপাটের অভিযোগ পাওয়া গেছে। হামলায় ২ জন আহত হয়েছে। আহতরা হলো পল্লী চিকিৎসক সোনা মিয়া (৩০) ও তার বড় ভাই চাঁন মিয়া (৩৪)।
জানা যায়, গতকাল বুধবার সাড়ে রাত ৮ টার সময় মধুপুর উপজেলার অরনখোলা  ইউনিয়নের টাঙ্গাইল-জামালপুর জেলার সীমান্তবর্তী ধরাটি গ্রামে ঔষধের দোকানে হামলা ভাংচুর ও লুটপাট হয়েছে। হামলাকারীদের আঘাতে ২জন আহত হয়েছে। মামলার অভিযোগে জানা যায়, ধরাটি গ্রামের পল্লী চিকিৎসক সোনা মিয়া দীর্ঘদিন যাবত ফার্মেসী খুলে ব্যবসা করে আসছেন। গতকাল বুধবার রাতে তার ফার্মেসীতে সোনা মিয়া ও তার বড় ভাই চাঁন মিয়া বসে কথা বলছিলেন। এমন সময় একই গ্রামের মজনু মিয়া (২৫), রেজাউল (৩০), তোফাজ্জল (৪৫), মহর উদ্দিন (৩৬), আব্দুল মালেকসহ (৪৫) আরো অজ্ঞাতনামা ৫-৬ জন সন্ত্রাসীরা পূর্ব শত্রুতার জের ধরে দেশীয় অস্ত্র  দা, কুড়াল ও বাগি নিয়ে অতর্কিত হামলা চালায়। এ সময় তারা দেশীয় অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে ফার্মেসীর চার চালা টিনের ঘর বেড়া সহ কেটে তছনছ করে দেয়। ফার্মেসীতে বসে থাকা ডাক্তার সোনা মিয়া ও তার বড় ভাই চাঁন মিয়াকে মারপিট করে আহত করে। তাদের ডাক-চিৎকারে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে আসলে হামলাকারীরা নগদ টাকা, ওষুধপত্র নিয়ে প্রাননাশের হুমকি দিয়ে চলে যায়। পরে তাদের দু’জনকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে মধুপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। ডাক্তার সোনা মিয়ার বড় ভাই চাঁন মিয়া বাদী হয়ে মধুপুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছে।
এ ব্যাপারে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মধুপুর থানার (এসআই) রোকন জানায়, লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। মামলা তদন্ত করতে যাবো।
উল্লেখ্য, উল্লেখিত সন্ত্রাসীরা এর আগেও একই গ্রামের জয়নাল আবেদীনের কলা বাগান কেটে তছনছ করে দিয়েছিল।

ব্রেকিং নিউজঃ