মধুপুরে ব্যবসায়ীর বাড়িতে ডাকাতির ঘটনায় মাইক্রোসহ একজন আটক

85

মধুপুর প্রতিনিধি ॥
টাঙ্গাইলের মধুপুরে ব্যবসায়ী নেতা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও আওয়ামীগের সাধারণ সম্পাদক ছরোয়ার আলম খান আবু’র মেয়ের জামাই নুরুল আলম খান রাসেলের বাসায় ডাকাতির ঘটনায় জড়িত মেহেদী হাসান (৪১) নামের এক ব্যক্তিকে আটক করেছে মধুপুর থানা পুলিশ।


(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

নুরুল আলম খান রাসেলের করা মামলায় আটক দেখিয়ে তাকে রোববার (১৬ অক্টোবর) আদালতের মাধ্যমে জেলে পাঠিয়েছে পুলিশ। পাশের উপজেলা কালিহাতী থেকে আটক মেহেদী নারায়নগঞ্জ জেলার রূপগঞ্জের বরপা এলাকার জনৈক আমজাদ হোসেনের ছেলে।

মধুপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ মাজহারুল আমিন মেহেদী আটকের সত্যতা স্বীকার করে জানান, তার সাথে থাকা ডাকাত দলের অন্যরা পালিয়ে গেছে। আটকের সময় ডাকাতি কাজে ব্যবহার করা মাইক্রো, মাইক্রোতে থাকা অটোলক খোলার যন্ত্রসহ এসব কাজে আধুনিক যন্ত্রপাতি জব্দ করা হয়েছে।
ওসি মাজহারুল আমিন আরও জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে মেহেদী ডাকাতি ঘটনার সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছেন।


(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

উল্লেখ্য, শুক্রবার (১৪ অক্টোবর) গভীর রাতে মধুপুর উপজেলার টাঙ্গাইল-ময়মনসিংহ রোডের নুরুল আলম খান রাসেলের রক্তিপাড়ার বাসায় ডাকাত দল ঢুকে অবস্থান করে। ডাকাতির প্রস্তুতি কালে জেগে যায় সবাই। আতœরক্ষার্থে দুইরাউন্ড গুলিছুঁড়লে ও মসজিদে মসজিদে মাইকিং করার কারণে ডাকাত দল পালিয়ে যায়।

সম্প্রতি গঠিত মধুপুর বনিক সমিতির সভাপতি ব্যবসায়ী নেতা নূরুল আলম খান রাসেল জানান , তার বাসার সিসি ক্যামেরায় দেখা গেছে ১০/১১ জনের ডাকাত দলের সবার মুখে মুখোশ পরা। রাত দুইটার দিকে বাসায় ঢুকে দ্বিতীয় তলায় অবস্থান নেয়। রাত তিনটার দিকে বাসার কাজের মেয়েকে জিম্মি করে তিনতলায় ঘুমিয়ে থাকা অবস্থায় আমাকে ডেকে বের করতে হুকুম করে।


(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

বাসার দ্বিতীয় ও নিচ তলায় অবস্থান করা মুখোশ ও গ্লাভস পরা ডাকাতরা এ সময় হুমকি দিলে রাসেল তার রিভলবার বের করে পরপর দুই রাউন্ড ফাঁকা গুলিছুড়েন। তার স্ত্রী সন্তানরা মোবাইল ফোনে বাসার সামনে ফিলিং স্টেশনের স্টাফদেরসহ ৯৯৯ ও থানায় ফোন দেন। ফিলিং স্টেশনের স্টাফরা পাশের একাধিক মসজিদের মাইকে ডাকাত পড়ার খবর প্রচারের ব্যবস্থা করেন। পাড়া প্রতিবেশিরা একে একে সবাই ঘুম থেকে জেগে এগিয়ে আসতে থাকে। বিপদের আভাস পেয়ে ডাকাত দল দ্রুত বাসার প্রাচীর টপকিয়ে বের হয়ে তাদের নিয়ে আসা গাড়িতে পালিয়ে যায় ।
রাসেল আরো জানান, ডাকাত দল বড় কোন সম্পদ নিতে আসেনি। ডাকাতি না অন্য কোন উদ্দেশ্যে তারা এসেছিল তা ভাবনার বিষয়।

রাসেলের শ্বশুড় মধুপুর উপজেলা চেয়ারম্যান ছরোয়ার আলম খান আবু জানান, ডাকাতি না অন্য কোন বিষয়, সেটা দেখতে হবে। দূরের জেলা থেকে ডাকাতি করতে আসা, নাকি রাসেলকে মেরে ফেলার উদ্দেশ্যে এসেছিল। তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানান ।

 

ব্রেকিং নিউজঃ