মধুপুরে তিনবারের সাবেক পৌর মেয়র সরকার শহীদের মৃত্যু

230

স্টাফ রিপোর্টার ॥
টাঙ্গাইলের মধুপুর উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক, বিএনপির এমপি প্রার্থী এবং মধুপুর পৌরসভার তিনবারের নির্বাচিত সাবেক মেয়র সরকার শহীদ ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নাল্লিলাহি…..রাজিউন)। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৫১ বছর। শুক্রবার সকালে স্ট্রোক করলে তাকে ময়মনসিংহের একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। পরে বিকাল সাড়ে পাঁচটার দিকে তিনি সেখানেই মৃত্যুবরন করেন। তিনি স্ত্রী, দুই সন্তানসহ অসংখ্য আত্মীয়স্বজন রেখে গেছেন।

পারিবারিক সুত্রে জানা যায় যায়, শনিবার সকালে মধুপুর পৌর শহরে তার বাড়ির সামনে জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। পরে টেংরী কবরস্থানে তাকে দাফন করা হবে বলে জানা যায়। তার মৃত্যুর খবরে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।




জানা যায়, বিগত ২০১৮ সালে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে টাঙ্গাইল-১ (মধুপুর-ধনবাড়ী) আসনে বিএনপির প্রার্থী হিসেবে ফকির মাহবুব আনাম স্বপন ও সরকার শহীদকে দলের মনোনয়নের চিঠি দিয়েছিল। সেসময় এই আসনে সরকার শহীদ ছিলেন বিএনপির বিকল্প প্রার্থী। ঋণ খেলাপির কারণে ফকির মাহবুব আনাম স্বপনের মনোনয়নপত্র বাতিল হওয়ায় সরকার শহীদই বিএনপির প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। সেই নির্বাচনে ড. আব্দুর রাজ্জাকের কাছে তিনি পরাজিত হন।




রাজনৈতিক পরিবারে বেড়ে ওঠা সরকার শহীদ ছাত্রজীবন থেকেই রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত ছিলেন। ১৯৮৯ সালে মধুপুর কলেজ ছাত্র সংসদ নির্বাচনে তিনি ছাত্রলীগের প্যানেলে বিপুল ভোটে ক্রীড়া সম্পাদক নির্বাচিত হন। ফুটবলার হিসেবে তার খ্যাতি ছিল। ক্রীড়ামোদী হিসেবে তিনি অবদান রেখেছেন। মধুপুর কলেজে স্নাতক শ্রেণিতে অধ্যয়নকালে ১৯৯৯ সালের নির্বাচনে তিনি প্রথম মধুপুর পৌরসভার মেয়র নির্বাচিত হন। পৌরসভার সাবেক মেয়র এবং আওয়ামী লীগ নেতা মাসুদ পারভেজকে তিনি সে সময়ে বিপুল ভোটে পরাজিত করে জয়ের মালা গলায় পড়েন।




এর পরবর্তীতে দুই দফা পৌর নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দুই বিখ্যাত নেতা তার নিকট ধরাশায়ী হন। বিগত ২০০৪ সালের পৌর নির্বাচনে আওয়ামী লীগ নেতা এবং মধুপুর উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল গফুর মন্টুকে তিনি পরাজিত করেন। একইভাবে বিগত ২০১১ সালের পৌর নির্বাচনে হারিয়ে দেন বর্তমান মধুপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এবং উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক সরোয়ার আলম খান আবুকে। হেভিওয়েট আওয়ামী লীগ নেতাদের টানা তিনবার পরাজয়ের মাধ্যমে হ্যাটট্রিক করায় তিনি টাঙ্গাইলের মধুপুরসহ দেশব্যাপী আলোচনায় আসেন।

ব্রেকিং নিউজঃ