মধুপুরে কফি ও কাজুবাদামের চারা বিতরণ উদ্বোধন করলেন কৃষিমন্ত্রী

111

স্টাফ রিপোর্টার ॥
কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক এমপি বলেছেন, দেশের পাহাড়ি অঞ্চল, বরেন্দ্র ও মধুপুর ভাওয়াল অঞ্চলের অনেক জায়গায় কাজুবাদাম ও কফি চাষের ব্যাপক সম্ভাবনা রয়েছে। এ সম্ভাবনাকে পুরোপুরি কাজে লাগাতে আমরা কাজ করছি। সারাদেশের যেসব অঞ্চলে কাজুবাদাম এবং কফির চাষাবাদের প্রচুর সম্ভাবনা রয়েছে, তা চাষের আওতায় আনতে ‘কাজুবাদাম ও কফি গবেষণা, উন্নয়ন ও সম্প্রসারণ’ শীর্ষক ২১১ কোটি টাকার প্রকল্প নেয়া হয়েছে।
বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় টাঙ্গাইলের মধুপুর উপজেলার বেরিবাইদ ইউনিয়নের মাগন্তীনগর গ্রামে কৃষকদের মাঝে কফির চারা বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে মন্ত্রী একথা বলেন।
বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের (বারি) আয়োজনে বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক ড. নাজিরুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ পরমাণু কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক ড. মির্জা মোফাজ্জল ইসলাম, বারি’র পরিচালক (পরিকল্পনা ও মূল্যায়ন) ড. রিনা রানী সাহা, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর টাঙ্গাইলের উপপরিচালক আহসানুল বাশার, কাজু বাদাম ও কফি গবেষণা, উন্নয়ন ও সম্প্রসারণ প্রকল্পের (বারি অংগ) প্রকল্প পরিচালক ড. আলতাফ হোসেন প্রমুখ।
অনুষ্ঠানে কৃষিমন্ত্রী একজন কৃষকের জমিতে কফি রোবাস্টা ও কফি অ্যারাবিকা এই দুই জাতের দুইটি কফির চারা রোপণ করে। এই প্রকল্পের মাধ্যমে কফি ও কাজুবাদাম চাষ সম্প্রসারণ কার্যক্রমের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। এছাড়া কৃষিমন্ত্রী ঔষধিগুণ সম্পন্ন গাছের চাষ সম্প্রসারণ কর্মসূচির আওতায় চারা বিতরণের মাধ্যমে স্থাপিত এলোভেরার বাগান পরিদর্শন করেন ও চারা বিতরণ করেন।
উল্লেখ্য, কাজু বাদাম ও কফি গবেষণা, উন্নয়ন ও সম্প্রসারণ প্রকল্পের (বারি অংগ) উদ্যোগে এই অঞ্চলে ৫ জন কৃষকের ৫০ শতাংশ জমিতে কফি ও কাজুবাদামের চারা রোপণ করা হচ্ছে।

 

ব্রেকিং নিউজঃ