ভূঞাপুর ও নাগরপুরে সড়ক দূর্ঘটনায় ৩ বন্ধুসহ ৪ জনের মৃত্যু

106

নাসির উদ্দিন, ভূঞাপুর / স্টাফ রিপোর্টার ॥
টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর ও নাগরপুরে মোটরসাইকেল দূর্ঘটনায় ৩ বন্ধুসহ ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার (১২ নভেম্বর) আলাদা স্থানে এই দূর্ঘটনা দুইটি ঘটেছে।
টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে মোটরসাইকেল নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে তিন কিশোরের মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার (১২ নভেম্বর) দুপুরে উপজেলার গোবিন্দাসী ইউনিয়নের রুহুলী এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন- উপজেলার চিতুলিয়াপাড়া গ্রামের আব্দুল বাছেদের ছেলে মকবুল (২০), মাটিকাটা গ্রামের আব্দুর রশিদের ছেলে আসাদুল ইসলাম (১৮) ও একই গ্রামের ইলিয়াসের ছেলে রাকিব (১৭)।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার রুহুলী গ্রামের বাছেদের ছেলে মকবুল ও তার দ্ইু বন্ধু নিয়ে আগের দিন কেনা মোটরসাইলে যোগে ঘুরতে বের হয়। দুপুরে মোটরসাইকেল যোগে উপজেলার রুহুলী হতে মাটিকাটা যাওয়ার পথে রুহুলী উচ্চ বিদ্যালয় সংলগ্ন রফিক মন্ডলের বাড়ির সামনে মোটরসাইকেল নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ঘরের দেয়ালে সজোরে ধাক্কা লাগে। পরে ঘটনাস্থলেই চালকসহ ৩ জন মারা যায়।
এ বিষয়ে ভূঞাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মুহাম্মদ আব্দুল ওহাব টিনিউজকে বলেন, মোটরসাইকেল নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ওই ৩ কিশোরের মৃত্যু হয়েছে। মরদেহ থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। আইনী প্রক্রিয়া শেষে নিহতদের মরদেহ তাদের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।
এদিকে টাঙ্গাইলের নাগরপুরে বেপরোয়া গতির মোটরসাইকেলের ধাক্কায় বাসন্তী সরকার (৩৭) নামে এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার (১২ নভেম্বর) দুপুর আড়াইটার দিকে ঢাকার ধামরাইয়ের আটি গ্রামের অরুন সরকারের স্ত্রী বাসন্তী সরকার (৩৭) তার স্বামী ও ছেলের সাথে টাঙ্গাইলের নাগরপুর উপজেলার বেকড়া ইউনিয়নের বরটিয়া গ্রামে মেয়ের বাড়িতে বেড়াতে আসছিল। তারা মেঘনা-নাগরপুর সড়কের দক্ষিণ নাগরপুর নামক স্থানে রাস্তার পাশ দিয়ে হেটে যাচ্ছিল। এ সময় বেপরোয়া গতির এক মোটরসাইকেল বাসন্তী সরকারকে (৩৭) চাপা দেয়। এতে গুরুত্বর আহত হয় বাসন্তী সরকার (৩৭)। এলাকাবাসী দ্রুত বাসন্তীকে উদ্ধার করে নাগরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপে¬ক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
ঘটনাস্থল থেকে এলাকাবাসী মোটরসাইকেল চালক ও মোটরসাইকেলটি আটক করে। কিন্তু মোটরসাইকেলের চালক ও আরোহী মোটরসাইকেল রেখে পালিয়ে যায়। পরে নাগরপুর থানা পুলিশ এসে মোটরসাইকেলটি জব্দ করে থানায় নিয়ে যায়।

ব্রেকিং নিউজঃ