ভূঞাপুরে স্কুল ছাত্রীকে অপহরণের পর ধর্ষনের অভিযোগে দুই ভাই গ্রেফতার

94

স্টাফ রিপোর্টার ॥
টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে সনাতন ধর্মাবলম্বী অষ্টম শ্রেণীতে পড়ুয়া ছাত্রীকে অপহরণের পর ধর্ষণের ঘটনায় দুই ভাইকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সোমবার (১০ অক্টোবর) রাতে উপজেলার অলোয়া ইউনিয়নের নলুয়া গ্রাম থেকে স্কুল ছাত্রীকে উদ্ধার করে। একই সময় মিরাজ ও সুমন নামের দুই ভাইকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত ধর্ষক ভূঞাপুর পৌরসভার পলিশা গ্রামের হাসমত আলীর ছেলে ও টেপিবাড়ি উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণীর শিক্ষার্থী মিরাজ এবং তার বড় ভাই সুমন (২২)। এর আগে গত শনিবার (৮ অক্টোবর) রাতে স্কুল ছাত্রীর মা বাদী হয়ে চারজনের নামে ভুঞাপুর থানায় একটি অপহরণ মামলা দায়ের করেন।

জানা যায়, স্কুল ছাত্রীকে বিভিন্ন সময় উত্যাক্ত করতো তারই সহপাঠি মিরাজ। এক পর্যায়ে প্রেমের ফাঁদে ফেলে বড় ভাই সুমন, ভাবি লাবন্য ও চাচা মনিরুজ্জামানের সহায়তায় তাকে রাস্তা থেকে শুক্রবার (৭ অক্টোবর) অপহরণ করা হয়। পরে এই ঘটনায় স্কুল ছাত্রীর মা বাদী হয়ে চারজনের বিরুদ্ধে অপহরণ মামলা দায়ের করে। পরে পুলিশ স্কুল ছাত্রীসহ মিরাজ ও তার ভাই সুমনকে গ্রেফতার করে।




স্কুল শিক্ষার্থী টিনিউজকে জানায়, একই বিদ্যালয়ে পড়ার সুবাদে মিরাজ আমাকে বিভিন্ন সময় প্রেমের প্রস্তাব দিত। পরে প্রেমের ফাঁদে ফেলে শুক্রবার (৭ অক্টোবর) মিরাজ ও তার ভাইসহ ওদের সহায়তায় আমাকে প্রথমে গাজীপুরের টঙ্গী এবং পরে সাভার তাদের আত্মীয়ের বাড়িতে নিয়ে যায়। টঙ্গীতেই মিরাজের সাথে আমার বিয়ে দেয়া হয়। এরপর থেকে এক সাথেই আমরা সাভার ও গাজীপুরে থেকেছি। পরে নলুয়াতে আসলে পুলিশ আমাদেরকে ধরে থানায় নিয়ে আসে।

স্কুল শিক্ষার্থীর মা ও মামা টিনিউজকে জানান, নাবালিকা মেয়েটিকে ফুঁসলিয়ে অপহরণ করা হয়েছে। আমরা দরিদ্র পরিবার। পরে থানায় মামলা করলে পুলিশ অপহরণকারী মিরাজ ও তার ভাইকে গ্রেফতার করে। মেয়েকে উদ্ধার করে। আসামীদের কঠোর শাস্তি দাবী করি।




ভূঞাপুর থানার এসআই ও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ফরিদ আহমেদ টিনিউজকে বলেন, থানায় মামলা দায়ের পর পুলিশ বিভিন্নস্থানে অভিযান পরিচালনা করে। অপহরণকারীরা বিভিন্ন সময় বিভিন্ন জায়গায় অবস্থান করে। পরে তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় মেয়েটিকে উদ্ধারসহ দুই ভাইকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকি দুইজন আসামীদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।




ভূঞাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ ফরিদুল ইসলাম টিনিউজকে বলেন, মেয়েটিকে উদ্ধারসহ জড়িত দুই ভাইকে গ্রেফতার করা হয়েছে। স্কুল ছাত্রীকে শারীরিক পরীক্ষার জন্য মঙ্গলবার (১১ অক্টোবর) দুপুরে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতাল শেষে ২২ ধারা জবানবন্দির জন্য টাঙ্গাইল আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। এছাড়া গ্রেফতার দুই ভাইকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

 

 

ব্রেকিং নিউজঃ