ভূঞাপুরে দুই বীরমুক্তিযোদ্ধাকে পাকা ঘর দিল সেনাবাহিনী

62

স্টাফ রিপোর্টার ॥
টাঙ্গাইলে ভূঞাপুরে দরিদ্র দুই সেনা বীরমুক্তিযোদ্ধাকে পাকা ঘর নির্মাণ করে দিয়েছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী। বৃহস্পতিবার (২৪ নভেম্বর) দুপুরে উপজেলার রাজাপুর গ্রামের মোসলেম আলী ও জগৎকুড়া গ্রামের আব্দুর রহমানের কাছে ঘরগুলো বুঝিয়ে দেওয়া হয়। এতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সেনানিবাসের ২৪ বেঙ্গল ব্যাটালিয়নের উপ-অধিনায়ক মেজর জুনায়েদ হোসেন উপস্থিত ছিলেন। ঘরগুলো একজন ঠিকাদারের মাধ্যমে নির্মাণ কাজ করেন সেনাবাহিনীর একটি ইউনিট। বারান্দাসহ পাঁকা ঘরটিতে দুটি রুম, আলাদা রান্না ঘর, ওয়াশ রুম এবং টিউবওয়েল রয়েছে।




সেনা বীরমুক্তিযোদ্ধা মুসলিম আলী ও আব্দুর রহমানের বাড়ি যমুনা নদীর চরাঞ্চলে ছিল। কিন্তু যমুনা নদীর ভাঙনে ঘরবাড়ি হারিয়েছে। অন্যত্র জায়গা থাকলেও থাকার ঘর ছিল না। পরে সেনাবাহিনী তাদের থাকার জন্য পাঁকা ঘর নির্মাণ করে হস্তান্তর করে।
বীরমুক্তিযোদ্ধার পরিবাররা জানান, চরাঞ্চলে থাকার কারনে কয়েক বার নদী ভাঙনের কবলে পড়ে ভিটাবাড়ি হারিয়ে নিঃস্ব ছিল তারা। পরে অন্যত্র জমি থাকলেও পরিবার-পরিজন নিয়ে থাকার ঘর ছিল না তেমন। পরে সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে গৃহহীন হিসেবে পাঁকা ঘর নির্মাণ করে দেয়া হয়েছে। শেষ বয়সে জীবনটা ভালভাবে কাটবে বলে আশা করি।




ঘাটাইল শহীদ সালাউদ্দিন সেনানিবাসের ১৯ পদাতিক ডিভিশনের মেজর নাজিউর রহমান বলেন, অবসরপ্রাপ্ত অসহায় গৃহহীন সেনা বীরমুক্তিযোদ্ধাদের সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে আবাসনের জন্য পাঁকা ঘর নির্মাণ করা হচ্ছে। এর ধারাবাহিকতায় বৃহস্পতিবার দুই জনকে ঘর হস্তান্তর করা হয়েছে। এরপর আরো চার জনকে ঘর দেওয়া হবে। তারা দেশের জন্য জীবনবাজি রেখে যুদ্ধ করে দেশ স্বাধীন করেছিল। বিভিন্ন জায়গায় আরো গৃহহীন সেনা বীরমুক্তিযোদ্ধাদের জন্য ঘর নির্মাণের কাজ চলছে।

ব্রেকিং নিউজঃ