ভুঞাপুর পৌরসভা নির্বাচনে বড় দুই দলেই একাধিক প্রার্থী প্রচারনায় নেমেছে

100

Bhuiyanpur Photoস্টাফ রিপোর্টারঃ

টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর পৌরসভা নির্বাচনে বড় দুই রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগ ও বিএনপি’র একাধিক প্রার্থী তাদের নির্বাচনী প্রচারণা চালাচ্ছেন। দলীয় মনোনয়ন পেতে  জোর লবিং শুরু করেছেন তারা। তবে দু’দলের তৃণমূল নেতাকর্মীরা মনে করেন দলীয় নির্বাচন হওয়ায় ত্যাগী ও জনসম্পৃক্ত আছে এমন অনেক নেতা দলীয় মনোনয়ন নাও পেতে পারেন।
জানা যায়, ভূঞাপুর পৌরসভা নির্বাচনে উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক ও বর্তমান মেয়র মাসুদুল হক মাসুদ, সাধারণ সম্পাদক আমিরুল ইসলাম তালুকদার বিদ্যুৎ মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন। অন্যদিকে পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তারিকুল ইসলাম চঞ্চল ও আওয়ামী লীগ নেতা আজাহারুল ইসলাম ও খায়রুল ইসলাম তালুকদার বাবলু প্রচার-প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। অপরদিকে উপজেলা বিএনপি’র প্রধান উপদেষ্টা আব্দুল খালেক ম-ল ও পৌর বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর হোসেন দলের মনোনয়ন পাওয়ার জন্য গণসংযোগ ও বিভিন্ন জায়গায় সভাসমাবেশ করছেন। দুই রাজনৈতিক দলের সম্ভাব্য প্রার্থীরা এলাকায় ডিজিটাল রঙিন পোস্টার, ব্যানার, সেমিনার, গণসংযোগ ও সাধারণ মানুষের দোয়া প্রার্থনা করছেন। তবে এরশাদের জাতীয় পার্টি, জামায়াতের কোন প্রার্থীর নাম এখনও শোনা যায়নি। আওয়ামী লীগ ও বিএনপির একাধিক সম্ভাব্য প্রার্থীরা সাধারণ ভোটারদের ও পৌরসভার উন্নয়নসহ বিভিন্ন ধরনের প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন।
উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক মেয়র আমিরুল ইসলাম তালুকদার বিদ্যুৎ বলেন, পৌরসভাকে দুর্নীতি মুক্ত করবো। পৌরসভার নাগরিকরা বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা থেকে বঞ্চিত। ড্রেনেজ ব্যবস্থা, রাস্তা-ঘাটের অবস্থা নাজুক। অল্পবৃষ্টিতেই মহল্লার রাস্তাসহ স্কুল-কলেজে প্রবেশের সড়কে হাঁটু পানি বেঁধে যায়। মাদকাসক্ত দিনদিন বাড়ছে পৌর এলাকায়। মেয়র নির্বাচিত হলে পৌরসভাকে ডিজিটাল পৌরসভাতে রূপ দিতে যা যা করণীয় সবই করা হবে। মাস্টারপ্ল্যান করে পৌর এলাকার ড্রেনেজ ব্যবস্থা নির্মাণ করা হবে, বৃষ্টিতে যেন মানুষের দুর্ভোগ পোহাতে না হয়। ভূঞাপুরে যে ফায়ার সার্ভিস চালু হয়েছে সেই ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি যাতে করে প্রত্যেক মহল্লায় যেতে পারে সে ভাবে রাস্তা করা হবে।
উপজেলা বিএনপির প্রধান উপদেষ্টা ও সাবেক মেয়র আব্দুল খালেক ম-ল বলেন, দল যদি আমাকে মনোনয়ন দেয় তাহলে নির্বাচন করবো। দলের বাইরে যাওয়ার সুযোগ নেই। আমি নির্বাচিত হলে পৌরসভার নাগরিকদের তার প্রাপ্য অধিকার যাতে পায় সে বিষয়ে কাজ করা হবে। এছাড়া রাস্তা-ঘাট, ড্রেনেজ ব্যবস্থা উন্নতি ও মাদক নিয়ন্ত্রণে কঠোর প্রদক্ষেপ নেয়া হবে।
বিএনপির আরেক সম্ভাব্য প্রার্থী পৌর বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর হোসেন জানান, দল আমাকেই মনোনয়ন দিবে আশা করি। তবে নির্বাচনে জয়ী হতে পারলে পৌর এলাকায় একটি বৃদ্ধাশ্রম নির্মাণ করবো। এছাড়া পৌরসভায় অনিয়ম ও দূর্নীতি হতে দেয়া হবে না। আমি পৌরসভা থেকে কোন ধরনের কমিশন গ্রহণ করবো না।

ব্রেকিং নিউজঃ