ভাসানী বিশ্ববিদ্যালয়ের অবরুদ্ধ ভিসিকে উদ্ধার করলেন শিক্ষার্থীরা

124

স্টাফ রিপোর্টার ॥
টানা তিনদিন ধরে অবরুদ্ধ থাকার পর টাঙ্গাইল মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যায়ের (মাভাবিপ্রবি) ভাইস-চ্যান্সেলর (ভিসি) প্রফেসর ড. ফরহাদ হোসেনকে উদ্ধার করেছে সাধারণ শিক্ষার্থীরা। শুক্রবার (৪ নভেম্বর) সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে ভিসির কার্যালয়ে ‘কর্মচারী সিন্ডিকেট বন্ধ করতে হবে’ শ্লোগান দিয়ে মিছিল করতে করতে প্রবেশ করে শিক্ষার্র্থীরা। এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারী নিয়োগের স্বচ্ছতা চাওয়া এবং ভিসিকে অবরুদ্ধ করে রাখার পিছনে জড়িত কর্মচারীদের শাস্তির দাবি জানায় তারা।




এদিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্দোলনকারী তৃতীয় শ্রেণীর ২২ কর্মচারীরা আন্দোলন থেকে সরে এসেছে। শুক্রবার সকালে ভিসির কার্যালয়ের তালা খুলে দিয়ে অবরোধ তুলে নিয়েছে আন্দোলনকারীরা।

তৃতীয় শ্রেণীর কর্মচারী সমিতির সভাপতি মাহফিজুর রহমান মাসুদ টিনিউজকে বলেন, আমাদের শুধু চাকুরী স্থায়ীকরণ নই। আমরা ১৪টি দাবি দিয়েছি। আমাদের সবগুলো দাবি মানতে হবে। দাবি মানার আশ্বাস দেওয়ায় অবরুদ্ধ কর্মসূচি প্রত্যাহার করা হয়েছে।




জানা যায়, শুক্রবার (৪ নভেম্বর) সকালে শিক্ষার্থীরা ভিসিকে কার্যালয় থেকে বের করে নিয়ে আসতে চান। এ সময় ভাইস-চ্যান্সেলর (ভিসি) প্রফেসর ড. ফরহাদ হোসেন শিক্ষার্থীদের জানান, বিষয়টি শিক্ষা মন্ত্রণালয় পর্যন্ত অবগত আছেন। সেখান থেকে নির্দেশনা আসলেই আমি আমার কার্যালয় থেকে বের হব। পরে মন্ত্রনালয়ে জানিয়ে ভিসি শিক্ষার্থীদের সাথে বের হয়ে জুম্মার নামাজ আদায় করেন। তিনি বলেন, আমার আগের উপাচার্য অস্থায়ী ভিত্তিতে ২২ জন তৃতীয় শ্রেণির কর্মচারি নিয়োগ দিয়ে গেছেন। ইউজিসি থেকে দুই দফায় ১৫ জনের নিয়োগের অনুমোদন পাওয়া গেছে। তাদের দাবি এই ১৫ জনের বিপরীতে ২২ জনকে নিয়োগ দিতে হবে। তারা লিখিত পরীক্ষায় অংশ না নিয়ে শুধু মৌখিক পরীক্ষায় অংশ নিবে। এ নিয়ে তারা কিছু দাবি উত্থাপন করে। শিক্ষা মন্ত্রনালয়সহ কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনা করেন বিষয়টি সমাধান করার আশ^াস দেওয়া হয়েছে।




গত (৩০ অক্টোবর) তৃতীয় শ্রেণী কর্মচারী সমিতির পক্ষ থেকে ভিসির কাছে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। স্মারকলিপিতে ১৪ দফা দাবি জানানো হয়। তৃতীয় শ্রেণীতে এডহক ভিত্তিতে কর্মরত ২২জন কর্মচারীর চাকুরী স্থায়ীকরণের দাবিতে গত বুধবার (২ নভেম্বর) দুপুর থেকে ভাইস-চ্যান্সলর (ভিসি) প্রফেসর ড. ফরহাদ হোসেনকে তার নিজ কার্যালয়ে তালা লাগিয়ে অবরুব্ধ করে রাখেন।

 

ব্রেকিং নিউজঃ