বিএনপি নেতা গয়েশ্বর ও মিন্টুর শাস্তি দাবিতে মির্জাপুরে মুক্তিযোদ্ধাদের সমাবেশ

95

স্টাফ রিপোর্টার//
বাংলাদেশ হঠাৎ করে স্বাধীন হয়েছে ও ১৯৭২’র সংবিধান ছুড়ে ফেলে দিয়ে নতুন সংবিধান করতে হবে, বিএনপির দুই নেতার এমন বক্তব্যের প্রতিবাদে মির্জাপুরে মানববন্ধন ও সমাবেশ হয়েছে। মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতা অর্জনকে কটূক্তি ও অবমাননা করায় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় ও ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল আউয়াল মিন্টুকে গ্রেপ্তার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানানো হয়।
এ দাবিতে মঙ্গলবার সকালে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের (পুরাতন) বাসস্ট্যান্ড এলাকায় মুুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সেরর সামনে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করে মির্জাপুর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ।




মির্জাপুর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসসের সাবেক কমান্ডার অধ্যাপক দুর্লভ বিশ্বাসের সভাপতিত্বে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মীর শরীফ মুহমুদ, মির্জাপুর পৌরসভার সাবেক মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা শহিদুর রহমান ও অ্যাড. মোশারফ হোসেন মনি, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি মোহাম্মদ আলী ও সৈয়দ ওয়াহিদ ইকবাল, বীর মুক্তিযোদ্ধা শাজাহান সাজু বক্তৃতা করেন।
সমাবেশে বক্তারা বলেন, দেশের সংবিধান লঙ্ঘন করে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস বিকৃতি ও সংবিধান সম্পর্কে কটূক্তি করার অপরাধে বিএনপি নেতা গয়েশ্বর চন্দ্র রায় ও আব্দুল আউয়াল মিন্টুকে দ্রæত গ্রেপ্তারের দাবি জানান।




মুক্তিযুদ্ধরা সব সময় মুক্তিযুদ্ধ, বঙ্গবন্ধু ও সংবিধান প্রশ্নে আপসহীন। এরা স্বাধীনতা বিরোধীদের এজেন্ডা বাস্তবায়ন করার জন্যই মুক্তিযুদ্ধের ভুল ইতিহাস উপস্থাপন করেছে, যা ৩০ লাখ শহীদ ও ২ লাখ মা-বোনের সভ্রমের বিনিময়ে অর্জিত সংবিধানের সুস্পষ্ট লঙ্ঘন। রাজাকারের দোসর গয়েশ্বর ও মিন্টুর বক্তব্য সংবিধানের ৫ম, ৬ষ্ঠ, ৭ম তফসিল ও অনুচ্ছেদ ৪ক লঙ্ঘন করেছে। স্বাধীনতাবিরোধী জামায়াত-শিবিরের এজেন্ট পাকিস্তানি দালালের কলঙ্ক বাংলাদেশ বইতে পারে না।




ব্রেকিং নিউজঃ