বাসাইলে জমি নিয়ে বিরোধে পুলিশ কর্মকর্তাকে মারপিট

111

news_imgবাসাইল সংবাদদাতাঃ

জমিজমা ও মামলা নিয়ে বিরোধের জেরে রাজিব-লিয়াকত বাহিনীর হাতে মারাত্মক আহত হয়েছে পুলিশ কর্মকর্তা বিল্লাল হোসেন খান। টাঙ্গাইলের বাসাইল উপজেলার ঝনঝনিয়া গ্রামে গত ১১ ডিসেম্বর মারপিটের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় বাসাইল থানায় মামলা করা হলেও পুলিশ অজ্ঞাত কারণে আসামীদের গ্রেফতার করছে না বলে অভিযোগ মামলার বাদীর। আহত বিল্লাল হোসেন খান বর্তমানে নারায়নগঞ্জ জেলায় এএসআই (এবি) পদে কর্মরত রয়েছেন।
মামলা সূত্রে জানা যায়, বিল্লাল হোসেন ছুটিতে বাড়ীতে এসে গত ১১ ডিসেম্বর দুপুরে উপজেলার ঝনঝনিয়া গ্রামে তার বাড়ীর পশ্চিম পাশে তার ক্রয়কৃত জমিতে বাড়ীর রাস্তা তৈরির কাজ করছিল। এ সময় অভিযুক্ত আসামীরা জামায়াতকর্মী রাজিব খান ও বিএনপি নেতা লিয়াকত হোসেন খানের নেতৃত্বে মজলিশ খান, লুলু খানম, হাবিবুর রহমান, জামাল খান, সোহেল খান, আলম খান, আইয়ুব আলী, নাসির উদ্দিন, নুরুল ইসলাম, তাহের আলীসহ অজ্ঞাতনামা আরও দুই/তিনজন মিলে অতর্কিতে হামলা চালায়। এ সময় আসামীরা বাঁশের লাঠি, লোহার রড, রামদা, চাপাতিসহ দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র দিয়ে বিল্লাল হোসেনকে আঘাত করে। এ ঘটনায় বিল্লাল ডাকচিৎকার করলে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসে। এ সময় আসামীরা ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যাওয়ার সময় সাড়ে পাঁচ হাজার টাকা লুট করে নিয়ে যায়। গুরুত্বতর আহত অবস্থায় বিল্লাল হোসেনকে উদ্ধার করে টাঙ্গাইল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
এ ঘটনায় ওই দিন বিকেলে আহতের বড় ভাই বজলুর রহমান খান বাদি হয়ে বাসাইল থানায় মামলা দায়ের করেন। যার মামলা নং-৬। মামলার বাদি অভিযোগ করে বলেন, পুলিশ কোন আসামীকে গ্রেফতার করছে না। উল্টো আসামীরা আমাদেরকে মারাত্মকভাবে প্রাণনাশের হুমকি দিচ্ছে।
এ বিষয়ে বাসাইল থানার (ওসি-তদন্ত) ও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম বলেন, বিষয়টি তদন্তাধীন রয়েছে। প্রথম আসামী পলাতক রয়েছে। তাকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। বাকী আসামীরা বর্তমানে জামিনে রয়েছে।

ব্রেকিং নিউজঃ