পৌরসভার মেয়রের সাথে বিন্দুবাসিনীর শিক্ষার্থীদের সভা ॥ সাংবাদিককে হামলার অভিযোগ

157

স্টাফ রিপোর্টার ॥
টাঙ্গাইল পৌরসভার মেয়রের আমন্ত্রণে তাঁর অফিস কক্ষে বিন্দুবাসিনী সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রাক্তন ও বর্তমান শিক্ষার্থীদের সঙ্গে পৌরসভার মেয়র সিরাজুল হক আলমগীরের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার (১১ অক্টোবর) সন্ধ্যায় মেয়রের অফিসকক্ষে মতবিনিময় সভায় বিন্দুবাসিনীর দেয়াল ভাঙার সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারসহ শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে টাঙ্গাইল শহর উন্নয়নে ১০ দফা প্রস্তাবনা পেশ করা হয়।




উক্ত সভায় শহরের বিন্দুবাসিনী সরকারী বালক উচ্চ বিদ্যালয় ও টাঙ্গাইল পৌরসভার সীমানা নিয়ে সৃষ্ট জটিলতার মিমাংসা হয়নি। এ নিয়ে মেয়রের সাথে বিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্রদের সাথে অনুষ্টিত বৈঠকে উভয়পক্ষের মধ্যে উত্তেজনার সৃষ্টি হলে বৈঠক পন্ড হয়ে যায়। এ সময় বিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্র ও সাংবাদিক অলক কুমার দাসের উপর চড়াও হওয়ার অভিযোগ উঠেছে মেয়রের বাহামভুক্ত অনুসারীদের বিরুদ্ধে। তারা অলক কুমার দাসের উপর হামলা চালিয়ে তাকে শারিরীকভাবে লাঞ্চিত করেছে বলে সাংবাদিক অলোক কুমার স্বীকার করেন। এ বিষয়ে দোষী ব্যক্তিদের শাস্তির দাবি করেন। এ ঘটনা মুহুর্তেই ছড়িয়ে পড়লে বিন্দুবাসিনী স্কুলের প্রাক্তন ও বর্তমান শিক্ষার্থীদের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। পৌর পিতার উপস্থিতিতে এমন ন্যাক্কারজনক ঘটনায় বিভিন্ন মহলে সমালোচনার ঝড় বইছে।




মঙ্গলবার (১১ অক্টোবর) সন্ধ্যায় অনুষ্ঠিত সভায় মেয়র শিক্ষার্থীদের বক্তব্য গভীর মনোযোগ দিয়ে শুনেন এবং প্রস্তাবিত ১০ দফা বাস্তবায়নে পৌর পরিষদের মতামতের ভিত্তিতে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দেন। দেয়াল ভাঙা প্রসঙ্গে মেয়র ভূমি অফিসের জমি পরিমাপের প্রতিবেদন স্কুল কর্তৃপক্ষ পাওয়া সাপেক্ষে বা নতুন করে পরিমাপের পর সিদ্ধান্ত নেয়া হবে বলে জানান। স্কুলের জমি পরিমাপ করে স্কুলকে বুঝিয়ে দিয়েই রাস্তা সম্প্রসারণ করা হবে বলেও মেয়র জানান। জমি পরিমাপের পর যদি দেয়াল ভাঙতেই হয় তাহলে নতুন দেয়াল, ওযুখানা মেয়র নিজ দায়িত্বে নির্মান করে দিবেন বলেও বলেন।

মতবিনিময় সভায় টাঙ্গাইল পৌরসভার প্যানেল মেয়র হাফিজুর রহমান স্বপন, তানভীর হাসান ফেরদৌস নোমান ও পৌরসভার কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

 

ব্রেকিং নিউজঃ