নাগরপুরে ৬ আ.লীগ, ২ আওয়ামী বিদ্রোহী ও ৩ স্বতন্ত্র (বিএনপি) প্রার্থী বিজয়ী

136

মাসুদ রানা, নাগরপুর ॥
তৃতীয় ধাপে অনুষ্ঠিত টাঙ্গাইলের নাগরপুর উপজেলার ১১টি ইউনিয়নে শান্তিপূর্ণভাবে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। রবিবার (২৮ নভেম্বর) সকাল ৮টা থেকে বিরতিহীনভাবে বিকাল ৪টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ চলে। এ উপজেলার ১১টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ৬ টিতে আওয়ামী লীগ ২ টিতে আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী ও ৩ টিতে স্বতন্ত্রের চাদরে মোড়ানো বিএনপি প্রার্থীরা জয়লাভ করেছে।
বেসরকারিভাবে নির্বাচিতরা হলেন- নাগরপুর সদর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ প্রার্থী কুদরত আলী। নৌকা প্রতীক নিয়ে তাঁর প্রাপ্ত ভোট ৬ হাজার ৯৪৭। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দী বিএনপি সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থী রফিজ উদ্দিন আনারস প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৪ হাজার ৯৬৫ ভোট। গয়হাটা ইউনিয়নে বিজয়ী হয়েছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী শেখ শামসুল হক। নৌকা প্রতীক নিয়ে তাঁর প্রাপ্ত ভোট ৯ হাজার ৬৯০ তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দী আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী স্বতন্ত্র প্রার্থী মোস্তাফিজুর রহমান আসকর ঘোড়া প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৬ হাজার ৭০৯ ভোট। মামুদনগর ইউনিয়নে বিজয়ী হয়েছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী শেখ জজ কামাল। নৌকা প্রতীক নিয়ে তাঁর প্রাপ্ত ভোট ৭ হাজার ৫০৫। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দী আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী স্বতন্ত্র প্রার্থী আনোয়ার হোসেন আনারস প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৬ হাজার ০১৬ ভোট। সলিমাবাদ ইউনিয়নে বিজয়ী হয়েছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী শাহীদুল ইসলাম অপু। নৌকা প্রতীক নিয়ে তাঁর প্রাপ্ত ভোট ৫ হাজার ৮৬৩। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দী জাতীয় পার্টি মনোনীত প্রার্থী এমদাদ হোসেন লাঙ্গল প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৪ হাজার ২৯৪ ভোট।
বেকড়া ইউনিয়নে বিজয়ী হয়েছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী শওকত হোসেন। নৌকা প্রতীক নিয়ে তাঁর প্রাপ্ত ভোট ৫ হাজার ৬৪২। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দী আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী স্বতন্ত্র প্রার্থী আসাদুজ্জামান কিছলু ঘোড়া প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ১ হাজার ৩২৫ ভোট। মোকনা ইউনিয়নে বিজয়ী হয়েছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী শরিফুল ইসলাম। নৌকা প্রতীক নিয়ে তাঁর প্রাপ্ত ভোট ৬ হাজার ৫৫৬। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দী বিএনপি সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থী আতোয়ার রহমান কোকা আনারস প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৪ হাজার ৭২৮ ভোট। ধুবড়িয়া ইউনিয়নে বিজয়ী হয়েছেন আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী শফিকুর রহমান শাকিল। আনারস প্রতীক নিয়ে তাঁর প্রাপ্ত ভোট ৪ হাজার ৩৪৩। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দী আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মতিয়ার রহমান নৌকা প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৩ হাজার ৬১১ ভোট। ভাদ্রা ইউনিয়নে বিজয়ী হয়েছেন আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী শওকত হোসেন। টেবিল ফ্যান প্রতীক নিয়ে তাঁর প্রাপ্ত ভোট ৩ হাজার ৭৪১। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দী বিএনপি সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থী হাবিবুর রহমান হাবিব মোটরসাইকেল প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৩ হাজার ২৬২ ভোট।
সহবতপুর ইউনিয়নে বিজয়ী হয়েছেন বিএনপি সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থী তোফায়েল আহম্মেদ। ঘোড়া প্রতীক নিয়ে তাঁর প্রাপ্ত ভোট ৯ হাজার ৭৪২। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দী আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আনিসুর রহমান নৌকা প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৮ হাজার ১৭২ ভোট। দপ্তিয়র ইউনিয়নে বিজয়ী হয়েছেন বিএনপি সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থী এম ফিরোজ সিদ্দিকী। আনারস প্রতীক নিয়ে তাঁর প্রাপ্ত ভোট ৪ হাজার ৬৮৩। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দী আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আবুল হাসেম নৌকা প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৪ হাজার ৩৩৯ ভোট। পাকুটিয়া ইউনিয়নে বিজয়ী হয়েছেন বিএনপি সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থী সিদ্দিকুর রহমান। আনারস প্রতীক নিয়ে তাঁর প্রাপ্ত ভোট ৩ হাজার ২৯৩। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দী আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী শামীম খান নৌকা প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ২ হাজার ৯১২ ভোট।

 

ব্রেকিং নিউজঃ