নাগরপুরে শিশু ধর্ষণ মামলায় একজনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড

2,267

আদালত সংবাদদাতা ॥
টাঙ্গাইলের নাগরপুর উপজেলার চেচুয়াজানী গ্রামের ৪র্থ শ্রেনির ছাত্রী ১০ বছরের শিশুকে বড়ই খাওয়ার কথা বলে ডেকে নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ মামলার রায়ে একজনকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড দিয়েছে নারী ও শিশু নির্যাতন ট্রাইব্যুনাল।

টাঙ্গাইল নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক খালেদা ইয়াসমিন সোমবার (২৫ জুলাই) দুপুরে তিনি এই রায় ঘোষনা করেন। সেই সাথে ১ লক্ষ্য টাকা জরিমানা ও অনাদায়ে ১ বছরের কারাদন্ড দিয়েছে। দন্ডিত ব্যক্তি নাগরপুর উপজেলার চেচুয়াজানী গ্রামের মৃত নয়ান আলীর ছেলে লিয়াকত আলী (৫৮)।

 

টাঙ্গাইল নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের এপিপি মোহাম্মদ আব্দুল কুদ্দুস টিনিউজকে জানান, বিগত ২০১৫ সালের (২১ মার্চ) বিকেল ৬ টার দিকে চেচুয়াজানী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৪র্থ শ্রেনীর ছাত্রী ১০ বছরের ওই শিশু বাড়ির পাশে খেলা করছিল। পরে একই গ্রামের দন্ডিত আসামী লিয়াকত আলী বড়ই খাওয়ার লোভ দেখিয়ে নিজ বসত ঘরে নিয়ে ঘিয়ে ঘরের দরজা বন্ধ করে দেয়। পরদিন ভিকটিম বাড়ীর লোকদের ঘটনার বিষয় জানায়। ধর্ষিত শিশুর পিতা প্রতিবন্ধি হওয়ায় পরে তার দাদা বিগত ২০১৫ সনের (২ এপ্রিল) নাগরপুর থানায় মামলা দায়ের করেন।

পরে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা নাগরপুর থানার এসআই আব্দুল হক তদন্ত শেষে বিগত ২০১৫ সালের (১৩ জুলাই) আসামী লিয়াকত আলীর বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগ পত্র দাখিল করেন। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা, চিকিৎসকসহ মোট ৮ জন আদালতে সাক্ষ্য প্রদান করেন।
আসামীর পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন এডভোকেট আব্দুর রাজ্জাক।

 

ব্রেকিং নিউজঃ