নাগরপুরে মোবাইল কোর্টে বালুখেকোদের হামলা ॥ এসিল্যান্ড লাঞ্ছিত

223
rbt

স্টাফ রিপোর্টার, নাগরপুর ॥
টাঙ্গাইলের নাগরপুরে বালুমহালে উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) তারিন মসরুরের নেতৃত্বে পরিচালিত মোবাইল কোর্টে হামলা চালিয়েছে বালুখেকোরা। হামলাকারীরা এ সময় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও নাগরপুর উপজেলা ভূমি কর্মকর্তা তারিন মসরুরকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করে। পরে এ ঘটনার সংবাদ পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) টাঙ্গাইল র‌্যাব-১২ কে অবহিত করে। টাঙ্গাইল র‌্যাব-১২ এর ডিএডি আক্তারুজ্জামানের নেতৃত্বে র‌্যাবের একটি দল ও নাগরপুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে ভূমি কর্মকর্তাকে উদ্ধার ও হামলাকারী সেনা সদস্য শরিফ উদ্দিনসহ ২ জন বালু ব্যবসায়ীকে আটক করেন। বৃহস্পতিবার (২২ এপ্রিল) বিকেলে উপজেলার দপ্তিয়র ইউয়িনের বাগকাটারী বালুমহালে এ ঘটনা ঘটে।
নাগরপুর উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) তারিন মসরুর টিনিউজকে জানান, উপজেলার বাগকাটারী যমুনার শাখা নদীতে দীর্ঘদিন যাবৎ প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে এক শ্রেণীর অবৈধ বালু ব্যবসায়ী ড্রেজার বসিয়ে বালু উত্তোলন করে আসছিল। এমন সংবাদে বৃহস্পতিবার (২২ এপ্রিল) বিকালে সরেজমিন ঘটনাস্থলে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হয়। এ সময় অবৈধ বালু উত্তোলনের দায়ে জাহাঙ্গীর ও উজ্জ্বলকে আটক করা হয়। এ খবরে ক্ষিপ্ত হয়ে সেনা সদস্য শরীফ উদ্দিন দলবল নিয়ে মোবাইল কোর্টে হামলা করে আমাকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত ও আটককৃতদের ছাড়িয়ে নেয়ার চেষ্টা করে। সেনা সদস্য শরিফ উদ্দিন (আইডি নং-১৩০৫৭২) কুমিল্লা ক্যান্টনমেন্টে কর্মরত। তার গ্রামের বাড়ি মানিকগঞ্জের দৌলতপুরে। সে বর্তমানে দুই মাসের ছুটিতে রয়েছে।
নাগরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সিফাত-ই-জাহান সন্ধ্যায় তাঁর কার্যালয়ে সাংবাদিকদের জানান, হামলাকারী সেনা সদস্য শরিফ উদ্দিনকে থানা হেফাজতে রাখা হয়েছে। শুক্রবার (২৩ এপ্রিল) তাকে ঘাটাইল ক্যান্টনমেন্টে হস্তান্তর করা হবে। পরে সেনা আইনে তার বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও জানান ইউএনও সিফাত-ই-জাহান।

 

ব্রেকিং নিউজঃ