নাগরপুরে ইউপি নির্বাচনে দলীয় মনোনয়নে প্রচারণায় ব্যস্ত প্রার্থীরা

180

স্টাফ রিপোর্টার, নাগরপুর ॥
সময় ঘনিয়ে আসছে ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনের। আইন অনুযায়ী ২০২১ সালের মার্চের তৃতীয় সপ্তাহের আগে ইউপি নির্বাচন শুরু করতে হবে। আর শেষ করতে হবে জুনের আগেই। এ নিয়ে ইতোমধ্যে নির্বাচনের উপযোগী ইউনিয়ন পরিষদের তালিকা চেয়ে জেলা প্রশাসকদের চিঠি দিয়েছে স্থানীয় সরকার বিভাগ।
এখনও নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা না হলেও ইতিমধ্যে নির্বাচন ঘিরে টাঙ্গাইলের নাগরপুর উপজেলার ইউনিয়নগুলোতে বইছে আগাম নির্বাচনী হাওয়া। চায়ের দোকানে-দোকানে বইছে সম্ভাব্য প্রার্থীদের নিয়ে বিশ্লেষণ। নড়েচড়ে উঠেছে চেয়ারম্যান ও সদস্য পদের সম্ভাব্য প্রার্থীরা। অনেকেই আগাম প্রচার প্রচারণা শুরু করে দিয়েছেন। দলীয় নেতাকর্মী ও ভোটারদের সমর্থন আদায়ে ব্যানার, ফেস্টুন ও চা-চক্রে নিজেদের জানান দিচ্ছেন অনেকেই। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও সমানতালে চলছে প্রচার-প্রচারণা। শুধু মাঠেই নয়, দলীয় সমর্থন পেতে একই ইউনিয়নে একাধিক প্রার্থীর পক্ষ থেকে চলছে নানারকম তদবির, রাজনৈতিক কার্যালয় হয়ে উঠেছে সরগরম। দলীয় সমর্থন পাওয়ার জন্য তৎপর হয়ে উঠেছে ওই ইউনিয়নের সম্ভাব্য প্রার্থীরা।
ইউনিয়নের বাসিন্দারা টিনিউজকে বলেন, এবারের নির্বাচনে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের অনেকেই দলীয় মনোনয়ন চাইবেন। দল যদি যোগ্য প্রার্থীকে মনোনয়ন দেয় তাহলে আওয়ামী লীগ তাদের হারানো এ আসন ফিরে পাবে। তা না হলে আবারও আওয়ামী লীগের ভরাডুবি হবে। আসন্ন নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে দলীয় মনোনয়ন পেতে সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে ইতিমধ্যে প্রচার প্রচারনা শুরু করে দিয়েছেন এম.এ জিন্নাহ। তিনি পাকুটিয়া ইউনিয়নের সর্বত্র মোটরসাইকেল শোভাযাত্রা করে জনগণকে তার পক্ষে কাজ করার জন্য উজ্জীবিত করেন। তিনি টিনিউজকে বলেন, গত নির্বাচনে দল যোগ্য প্রার্থী মনোনয়ন দিতে না পারায় আমরা এ আসনটি হারাই। তাই দল যদি এবারের নির্বাচনে আমাকে মনোনয়ন দেয় তাহলে জনগণকে সাথে নিয়ে হারানো আসনটি পুনরুদ্ধার করতে পারবো। এই ইউনিয়নের বড় বড় যেসব উন্নয়ন চোখে পড়বে, স্থানীয় এমপি আহসানুল ইসলাম টিটুর নেতৃত্বে সব উন্নয়ন তিনিই করেছেন বলে দাবি তাঁর। অপর প্রার্থীরা টিনিউজকে বলেন, দলের একজন পরীক্ষিত কর্মী হিসেবে আসন্ন নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন চাইতে জনগন এবং দলীয় নেতাকর্মীরা তাদের চাপ প্রয়োগ করছেন। তাই সম্ভাব্য প্রার্থীরা দলীয় নেতৃবৃন্দের কাছে মনোনয়ন চাইবেন। তারা আশাবাদি নিজ নিজ ইউনিয়নকে একটি মডেল ইউনিয়নে রুপান্তর করতে দল তাদের এবার মূল্যায়ন করবেন।

 

 

ব্রেকিং নিউজঃ