ধনবাড়ীতে ঘোড়দৌড় প্রতিযোগিতায় হাজারো মানুষের ঢল

80

ধনবাড়ী প্রতিনিধি//
যুগের পরিক্রমায় হারিয়ে যাচ্ছে গ্রাম বাংলার ঐতিহ্য, সুস্থ্য বিনোদনে ঘোড়দৌড় প্রতিযোগিতা একটি। শীতকালীন এ ঘোড়দৌড় প্রতিযোগিতা দেখতে টাঙ্গাইলের ধনবাড়ীতে হাজারো মানুষের ঢল নামে। এ সুস্থ্য বিনোদনকে উপভোগ করতে আগের দিনই স্থানীয়দের বাড়ি ভরে যায় আত্মীয়-স্বজনে। সকাল থেকে হাজার হাজার নারী- পুরুষসহ বিভিন্ন বয়সী শিশুরা মাঠে জড়ো হতে থাকেন এদিনটি ঘিরে।
রোবাবর (১৫ জানুয়ারী) বিকালে উপজেলার বীরতারা ইউনিয়নের কয়া পাটাদহ গ্রামের ৫তম ঘোড়দৌড় অনুষ্ঠিত হয়। প্রতিযোগিতায় দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে আসা প্রায় ৫৯টি ঘোড়া ৫টি দলে অংশ নেয়। প্রতিযোগিতা দেখতে প্রায় ৩০ হাজার দর্শনার্থী সমবেত হয়।




সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, মাঠের মূল প্রবেশ পথ তোরণে সাঁজানো। প্রতিযোগিতা শুরুর আগে থেকেই মাঠের চারদিকে হাজারো দর্শকের উচ্ছ¡াসিত আনন্দ। তাদের করতালি আর চিৎকারে অন্যরকম উল্লাস। খেলা উপভোগ করেন সকল বয়সীরা, এ যেন চিরায়ত বাঙালির চিরচেনা মিলনমেলা।
ঘোড়ারদৗড় দেখতে আসা পালাশ ইসলাম, বাবুল আহম্মেদ ও রুমি আক্তারসহ অনেকে বলেন, ‘বর্তমানে ঘোড়ারদৗড় গ্রামীণ ঐতিহ্য। প্রযুুক্তির দাপটে এ সুস্থ্য বিনোদন হারিয়ে যেতে বসেছ। ঘোড়াদৌড় উপভোগ ভালো লাগে। প্রতি বছর ঘোড়াদৌড় দেখতে আসি।’
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থেকে বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার তুলে দেন কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক।




এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান হারুনার রশীদ হীরা, উপজেলা আ’লীগের সভাপতি মীর ফারুখ আহমেদ ফরিদ, সাধারণ সম্পাদক খন্দকার মঞ্জুরুল ইসলাম তপন, ভাইস চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা শামছুল হুদা, সহকারী কমিশনার (ভূমি) ফারাহ ফাতিহা তাকমিলা, বীরতারা ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি মো. ফজলুল হক, সধারণ সম্পাদক মোজাম্মেল হক প্রমুখ।
প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান অর্জন করে মাদারগঞ্জের আলহাজ নজরুল ইসলাম, দ্বিতীয় অর্জন করে ধনবাড়ীর আবু ছামা। এছাড়াও সকল অংশগ্রহণকারীদের শান্তনা পুরস্কার তুলে দেয়া হয়।



ব্রেকিং নিউজঃ