দলীয় প্রার্থী পরাজিত হলে বিরোধীরা সুযোগ পাবে- মির্জা আজম এমপি

166

এসএম এরশাদ, মির্জাপুর ॥
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এখন উন্নয়নশীল দেশের কাতারে অন্তর্ভূক্ত হয়েছে। ১৩ বছর আগে আমাদের দেশে মাথাপিছু আয় ছিল ৫৪০ ডলার। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ১৩ বছর সরকার পরিচালনায় এখন মাথাপিছু আয় ২ হাজার ৬০০ ডলারে দাঁড়িয়েছে। প্রধানমন্ত্রী নেতাকর্মী ও জনগনের প্রতি আস্থা, ভরসা ও বিশ্বাস রেখে দিন-রাত পরিশ্রম করে দেশকে এগিয়ে নিচ্ছেন তিনি।
রবিবার (৯ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও ঢাকা বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত মির্জা আজম এমপি টাঙ্গাইল-৭ (মির্জাপুর) আসনের উপনির্বাচন উপলক্ষে উপজেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত বিশেষ বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।
তিনি আরও বলেন, দলীয় প্রার্থীর পরাজয় হলে দলের জনপ্রিয়তা কমছে বিরোধীরা তা প্রচারের সুযোগ পাবে। তাই সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে উপনির্বাচনে দলীয় প্রার্থীকে বিজয়ী করতে হবে। তারা সফল হলে আমার, আপনার ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ কারও রাজনীতি থাকবে না।
মির্জাপুর শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়াম মাঠে অনুষ্ঠিত বিশেষ বর্ধিত সভায় সভাপতিত্ব করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি (ভারপ্রাপ্ত) ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা মীর এনায়েত হোসেন মন্টু। উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী খান আহমেদ শুভ ছাড়াও টাঙ্গাইল জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সাবেক সংসদ সদস্য ফজলুর রহমান খান ফারুক, টাঙ্গাইল সদর আসনের এমপি ছানোয়ার হোসেন, ভূঞাপুর-গোপালপুর আসনের এমপি তানভীর হাসান ছোট মনি, জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি শামছুল হক, কেন্দ্রীয় যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য অ্যাডভোকেট মামুনুর রশিদ মামুন প্রমুখ বক্তৃতা করেন।
মির্জা আজম তার বক্তৃতায় বলেন, আমি এবং জাহাঙ্গীর কবীর নানক এমপি নারায়নগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের দায়িত্বে রয়েছি। তারপরও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে টাঙ্গাইল-৭ (মির্জাপুর) আসনের উপনির্বাচন উপলক্ষে আয়োজিত বিশেষ বর্ধিত সভায় আমি আসতে বাধ্য হয়েছি। ভোটারদের মধ্যে প্রাণচাঞ্চল্য ফিরিয়ে আনতে উপজেলা থেকে ওয়ার্ড পর্যায়ে সকল নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ হয়ে প্রতিটি ঘরে ঘরে গিয়ে নৌকা প্রতীকে ভোট প্রার্থনা করতে হবে।
এর আগে সকালে একই উদ্দ্যেশে একই স্থানে উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক শামীম আল মামুনের উদ্যোগে এক বিশাল যুব সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।
উল্লেখ্য, গত (১৬ নভেম্বর) টানা চারবারের এমপি একাব্বর হোসেনের মৃত্যু হলে এ আসনটি শূণ্য হয়। আগামী (১৬ জানুয়ারি) এই আসনের উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

ব্রেকিং নিউজঃ