টাঙ্গাইল স্টেডিয়ামে শেখ কামাল ফ্লাডলাইট মিনি ফুটবলে শুভ সকাল চ্যাম্পিয়ন

314

মোজাম্মেল হক ॥
পঁচিশ থেকে ত্রিশ যদি হয় ফুটবলারদের উপযুক্ত বয়স, তাহলে চল্লিশ হবে বয়স ধরে রাখার আস্ফালন! বেঁচে থাকার সত্যিকার অবলম্বন। “খেলাধুলায় মন দাও, স্বাস্থ্যগঠনে নজর দাও”। মির্জা তোফাজ্জল হোসেন মুকুল স্মৃতি ফাউন্ডেশন সেই পথ ধরেই আয়োজন করে শেখ কামাল ফ্লাডলাইট মিনি ফুটবল টুর্নামেন্ট। চল্লিশ বছর বয়সে দর্শক হয়ে শুধু খেলাই দেখবো! না আমরাও এ বয়সে খেলতে পারি, সেটাই দেখাবো। ১০ দিনব্যাপী সেই জমজমাট ফুটবলের আসর বসেছিলো ঐতিহ্যবাহী টাঙ্গাইল স্টেডিয়ামে। চল্লিশ উর্দ্ধের ফুটবলার নিয়ে ১৬টি দল অংশগ্রহণ করেছিলো। যা বৃহস্পতিবার (২৪ মার্চ) রাত ৮টায় ফাইনাল খেলায় শুভ সকালের জয়ের মাধ্যমে শেষ হলো। শুভ সকাল চ্যাম্পিয়ন হলো।
আকর্ষনীয় ফুটবল খেলা দেখতে খেলার মধ্য বিরতিতে টাঙ্গাইল সদর আসনের সংসদ সদস্য প্রধান অতিথি ছানোয়ার হোসেন দর্শক হয়ে এসেছিলেন। পাশে ছিলেন সদর উপজেলা চেয়ারম্যান শাহজাহান আনছারী। রাতে ফ্লাডলাইটের আলোয় ফাইনালে অংশগ্রহণকারী শুভ সকাল ও সোনালী সকাল দলের ফুটবলাররা কাঙ্খিত গোল বের করার জন্য আক্রমনের পসরা নিয়ে খেলতে থাকে। খেলার নির্ধারিত (২০+২০) মিনিটের খেলার ১২ মিনিটের সময় শুভ সকাল দল এগিয়ে যায়। বিক্ষিপ্ত আক্রমনে সোনালী সকালের ডিবক্সে জটলা থেকে শুভ সকালের স্টাইকার দেলোয়ার গোল করে (১-০) দলকে এগিয়ে নেয়।
খেলায় পিছিয়ে পড়ে সোনালী সকাল গোল করে খেলায় ফিরে আসার চেষ্টা করে। কিন্তু দক্ষ স্টাইকারের ব্যর্থতায় ফেরা হয়নি। শুভ সকাল পাল্টা আক্রমনে গোল করে ব্যবধানও বড় করতে পারেনি। যে কারনে সোনালী সকালের পরাজয়ে শুভ সকালের জয়লাভ করে। দু’দলের খেলা দেখে কয়েক হাজার খানেক দর্শক মুগ্ধ হয়। ফ্লাড লাইটের আলোয় ছোট গোল বারে প্রথমবারের মতো আয়োজিত চল্লিশ উর্দ্ধ বয়সি ফুটবলাররা তাদের চমৎকার ক্রীড়া নৈপুন্য প্রদর্শন করেন। টুর্নামেন্টে অংশ নেয়া দলগুলোতে জেলা ও জাতীয় দলের সাবেক ৬ জন করে খেলোয়াড়রা খেলায় অংশগ্রহণ করেন। সাবেক ফুটবলারদের নিয়ে আয়োজিত প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ১০ দিনব্যাপী এই টুর্নামেন্টের খেলা দেখতে প্রতিদিন টাঙ্গাইল স্টেডিয়ামে দর্শকদের উপচেপড়া ভিড় দেখা যায়।
ফাইনাল খেলা শেষে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আমিনুল ইসলাম পুরষ্কার বিতরণ করেন। জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক মির্জা মঈনুল হোসেন লিন্টুর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাবেক ফুটবলার সৈয়দ বুলবুল ইসলাম, জেলা ক্রীড়া কর্মকর্তা নুরে এলাহী, জেলা ক্রীড়া সংস্থার যুগ্ম সম্পাদক ইফতেখারুল অনুপম, টুর্নামেন্টের সদস্য সচিব শাহ আব্দুল আজিজ বাপ্পী, সদস্য ভ্রমর চন্দ্র ঘোষ ঝুটন ও জহিরুল ইসলাম স¤্রাট।
টুর্নামেন্টে সর্বোচ্চ গোলদাতা রংধনু রাইডাসের ডালিম ও সেরা খেলোয়াড় শুভ সকালের স্টাইকার রমজান আলী। টুর্নামেন্টে মিডিয়া পাটনার ছিল টাঙ্গাইলের সবচেয়ে জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল টিনিউজবিডি ডটকম। প্রতিদিন টিনিউজবিডি ডটকম ফেসবুক পেইজে খেলার লাইভ প্রচার করে।
উল্লেখ্য, ১৬টি দল নিয়ে ৪টি গ্রুপে বিভক্ত হয়ে গত (১৫ মার্চ) টুর্নামেন্ট শুরু হয়। গ্রুপ পর্ব থেকে সুপ্রভাত ক্লাব, আমরা সুপ্রভাত, রংধনু রাইডার্স, সোনালী সকাল ক্রীড়া সংঘ, শুভ সকাল, নূরা পরিবার, বাসাইল সোনালী অতীত ক্লাব ও কারক ফ্রেন্ডস ক্লাব কোয়ার্টার ফাইনালে উঠে। কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে সেমিফাইনালে উঠে রংধনু রাইডার্স, সুপ্রভাত ক্লাব, শুভ সকাল ও সোনালী সকাল ক্লাব। সেমিফাইনালের বিজয়ী সোনালী সকাল ও শুভ সকাল ফাইনালে অংশগ্রহণ করে। ফাইনাল খেলায় অংশগ্রহণকারী ফুটবলাররা হলো- শুভ সকাল দল- মোজাম্মেল হক (অধিনায়ক), শাকিল, রমজান, সুজন, উত্তম, দেলোয়ার, হাবিব, আব্দুর রউফ, লিটন ও আব্দুল খালেক। সোনালী সকাল ক্লাব- গোলাম ফারুক, হারুন, মতি, আলীম আকন্দ, ফারুক, মামুন, রুনু, মমিন, আনোয়ার ও রানা।
রেফারী- জামিলুর রহমান, সহকারী- মাসুদ ভূইয়া ও হারুন অর রশীদ।

 

ব্রেকিং নিউজঃ