টাঙ্গাইল স্টেডিয়ামে বিন্দুবাসিনীর সাবেক ছাত্রদের প্রীতি ফুটবল ম্যাচ অনুষ্ঠিত

304

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥
টাঙ্গাইলের ঐতিহ্যবাহী বিন্দুবাসিনী সরকারী বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক (১৯৮৩ থেকে ১৯৯৪) ছাত্রদের প্রীতি ফুটবল ম্যাচ (১-১) গোলে ড্র হয়েছে। বুধবার (১৩ জুলাই) রাতে টাঙ্গাইল স্টেডিয়ামে বিন্দুবাসিনী ব্যাচ ২০১৬ এর আয়োজনে বিন্দুবাসিনী ফুটবল চ্যাম্পিয়নশীপ ফাইনাল খেলার পর্বে বিন্দুবাসিনী স্কুলের (১৯৮৩ থেকে ১৯৯৪) ব্যাচের সাবেক ছাত্রদের সাদা ও লাল দলের মধ্যে প্রীতি ফুটবল ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়।

প্রীতি ফুটবল ম্যাচ নিয়ে সাবেক ও বর্তমান ছাত্রদের ব্যাপক আগ্রহ পরিলক্ষিত হয়। প্রীতি ফুটবল ম্যাচে বিন্দুবাসিনী স্কুলের সাবেক ছাত্র ও বাংলাদেশ জাতীয় দলের সাবেক ফুটবলার ঢাকা মোহামেডানের তারকা ফুটবলার সাদেকুল ইসলাম উত্তম, শহীদুল আলম রঞ্জন ও ঢাকা মুক্তিযোদ্ধার সাইফুল ইসলাম ম্যাচে অংশগ্রহণ করে। দু’দলেই সাবেক ফুটবলারদের ছড়াছড়ি ছিল। তবে যাদের ফিটনেস ভাল, তারাই এই প্রীতি ফুটবল ম্যাচে এগিয়ে থেকেছে। বিশেষ করে সূর্য উঠার সাথে সাথে যেসব সাবেক ফুটবলার এখনও স্টেডিয়াম সংলগ্ন আউটার মাঠে ফুটবল নিয়ে মেতে থাকে সেই জুয়েল খান, ইফতেখারুল অনুপম, তাবিব, হাবিব, হালিম, রঞ্জন, শিমুল ও জলিলের খেলায় আস্থার ছাপ ছিল। সারা মাঠ জুড়ে তাদের পদচারনা ছিল।

সাদা দলে জুয়েল খান, অনুপম ও হাবিবের মধ্যমাঠ দখলে লাল দল আক্রমনে সুবিধা করতে পারেনি। যে কারনে সাদা দলের আক্রমনের ঢেউ উঠে লাল দলের গোলবারে। যদিও স্টাইকারদের ব্যর্থতায় নিশ্চিত ৪টি গোল বঞ্চিত হয় সাদা দল। খেলার প্রথমার্ধ গোলশূন্য ড্র হলে খেলার দ্বিতীয়ার্ধের ৫ মিনিটের সময় সাদা দলের আব্দুল জলিল গোল করে (১-০) দলকে এগিয়ে নেয়। খেলায় পিছিয়ে পড়ে লাল দল গোল পরিশোধের জন্য আক্রমন করে খেলতে থাকে। খেলার অন্তিম মহুর্তে সাবেক তারকা ফুটবলার শহীদুল ইসলাম রঞ্জন মধ্যমাঠ থেকে বল ধরে নিয়ে ৩ জন ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে সাদা দলের গোলরক্ষক আজাদকে পরাস্ত করে (১-১) খেলায় সমতা আনে। এরপর কোন দল গোল করতে ব্যর্থ হলে খেলা ড্র হয়।

দু’দলে যারা খেলেছে- সাদা ফুটবল দল- আজাদ (গোলরক্ষক), তুহিন, হালিম, ইফতেখারুল অনুপম, মোজাম্মেল হক, তাপস, জুয়েল খান, তাবিব, শামিম বাবু, হাবিব, উপল, আব্দুল জলিল, সোহেল, মাসুদ ও পনির।
লাল ফুটবল দল- তুহিন (গোলরক্ষক), মুন্না, সাদেকুল ইসলাম উত্তম, বড়মনি, শিমুল, মজনু, হাফিজ, টিটু, সুভাষ, মালা, শহীদুল আলম রঞ্জন, লিটন মোল্লা, হারাধন ও মাজহার। রেফারী- জামিলুর রহমান জামিল।

 

ব্রেকিং নিউজঃ