টাঙ্গাইল সদর ও মধুপুরে ১১ ইউপিতে সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত

93

স্টাফ রিপোর্টার/ মধুপুর সংবাদদাতা ॥
টাঙ্গাইলের সদর উপজেলার তিনটি ও মধুপুর উপজেলার ৮টি ইউপিতে বৃহস্পতিবার (১৩ জুলাই) দু’একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা ছাড়া সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে।
মধুপুরে সরকার দলীয়প্রার্থী ও কর্মির বিরুদ্ধে একটি ইউপিতে এজেন্টদের বের করে মারপিটের ভয় দেখানো, প্রকাশ্যে সিলমারাসহ নানা অনিয়মের অভিযোগ এনে বিএনপি’র প্রার্থী নির্বাচন বর্জন করেছেন। চেয়ারম্যান, মেম্বার প্রার্থীদের কর্মিদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া দুই একটি ঘটনাও ঘটেছে।
কুড়াগাছা ইউনিয়নের বিএনপি প্রার্থী শাহ ছালাম অভিযোগ করেন, ১ নং ওয়ার্ডের আঙ্গারিয়া কেন্দ্রে তার এজেন্ট তালিকা গ্রহণই করেনি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। মোমিনপুর ও সাইনামারী কেন্দ্রে গ্রহণ করার পরপরই সব এজেন্টদের কেন্দ্র থেকে বের করে দেন সরকার দলীয় প্রার্থীর কর্মিরা। কিছুক্ষণ ভোটের স্বাভাবিক পরিবেশে রেখে ১০টা থেকে জোর করে ও প্রকাশ্যে দেখিয়ে ভোট গ্রহণ করা হয়। বাঁধা দিতে গেলে কর্মি ভোটারদের মারতে আসেন। এসব কারণে ভোটের স্বাভাবিক পরিবেশ নষ্ট হয়েছে। তাই তিনি দলের সাথে বসে কথা বলে ভোট বর্জনের ঘোষণা দেন।
সকাল ১০টার দিকে আউশনারা ইউনিয়নের শাইলবাইদ কেন্দ্রে মেম্বার প্রার্থী ময়েন উদ্দিন ও জয়নালের কর্মিদের মধ্যে মারপিটে ওই দুই প্রার্থীসহ উভয় পক্ষের ৬ জন আহত হন। আহতরা হলেন- ময়েন উদ্দিন ও তার কর্মি রফিকুল ইসলাম, শাহজালাল, এবং তার প্রতি পক্ষ প্রার্থী জয়নাল ও তার কর্মি সোলায়মান ও হাফিজ মিয়া।
এদিকে বেলা ১১টার দিকে অরণখোলা ইউপি’র ডিজিটাল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে সরকার দলের কর্মিদের সামনে দেখিয়ে ভোট দেয়া নিয়ে বিএনপি ও আওয়ামী লীগের কর্মিদের এক উত্তেজনায় কিছু সময় ভোট গ্রহণ বন্ধ থাকে। র‌্যাবের একটি দল এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনলে পুনরায় ভোট গ্রহণ শুরু হয়।
এসব বিচ্ছিন্ন ঘটনা ছাড়া ১১টি ইউনিয়নে সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

ব্রেকিং নিউজঃ