টাঙ্গাইল শহরে চলাচলের দুর্ভোগ লাঘবে এলাকাবাসীর টাকায় বাঁশের সাঁকো

277

স্টাফ রিপোর্টার ॥
টাঙ্গাইল পৌরসভার কাগমারা ভাঙারপাড় এলাকায় বন্যার পানির স্রোতে ভেঙে যাওয়া স্থানে জনদুর্ভোগ লাঘবে বাঁশের সাঁকো নির্মাণ করেছে এলাকাবাসী। বুধবার (২৯ জুন) সন্ধ্যায় নিজেদের অর্থায়নে ভাঙা সড়কের ওই অংশে বাঁশের সাঁকো দিয়ে চলাচলের উপভোগী করা হয়। এর আগে গত রোববার (২৬ জুন) সন্ধ্যায় বন্যার পানির প্রবল স্রোতে পাকা সড়কটি ভেঙে গিয়ে টাঙ্গাইল শহরের সাথে সদর উপজেলার পশ্চিম ও উত্তরাঞ্চলের সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়। জনপ্রতিনিধিরা দুর্ভোগ লাঘবে দ্রুত সময়ে মধ্যে মেরামতের ব্যবস্থার আশ্বাস দিলেও তা বাস্তবায়ন না হওয়ায় এ পদক্ষেপ নেন তারা।

 

স্থানীয়রা টিনিউজকে জানায়, টাঙ্গাইল-যুগনী সড়কে কাগমারা এলাকায় ভেঙে যাওয়ার ফলে সদর উপজেলার বাঘিল ও দাইন্যা ইউনিয়নের কয়েক গ্রামের মানুষের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। সড়কটি ভেঙে বন্যার পানি ঢুকে পৌরসভার ৩ নং ওয়ার্ডের কাগমারা, দাইন্যা ইউনিয়নের বাইমাইল, বাসারচর, লাউজানা ও বাঘিল ইউনিয়নের কোনাবাড়ী ও ধরেরবাড়ী গ্রামের ফসলি জমি তলিয়ে গেছে। বিষয়টি সমাধানের জন্য টাঙ্গাইল পৌরসভার মেয়র সিরাজুল হক আলমগীর, সদর উপজেলার পরিষদের চেয়ারম্যান শাহজাহান আনছারী এবং স্থানীয় কাউন্সিলর সাইফুল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে জনদুর্ভোগ লাঘবের আশ্বাস দিলেও তিনদিনেও তা বাস্তবায়ন হয়নি। বুধবার (২৯ জুন) বিকেলে ওই এলাকার আব্দুস সবুর মাতাব্বর, ব্যবসায়ী রফিকুল ইসলাম স্বপন, আজাদ ফকির, আফসার ফকির, লাল মিয়া, শিহাব মিয়া, ঘটু মিয়া, টুটুল মিয়া, শাহিন মিয়া, রাজু মিয়াসহ যুবকদের উদ্যোগে ও নিজেদের অর্থায়নে বাঁশের ওই সাঁকোটি নির্মাণ করা হয়েছে। এতে যানবাহন চলাচল করতে না পারলেও মানুষ পারাপার হতে পারছে। মানুষের দুর্ভোগ অনেকটা লাঘব হয়েছে।

ব্যবসায়ী ও ওই এলাকার বাসিন্দা রফিকুল ইসলাম স্বপন, লাল মিয়াসহ কয়েকজন টিনিউজকে বলেন, এই সড়ক দিয়ে শহরের সাথে বাঘিল ইউনিয়নের দুর্গম যমুনার চরের মানুষ যাতায়াত করে। অনেকেই এই সড়ক দিয়ে মাঝরাতেও বাড়ি ফিরেন। সড়কটি বন্যায় ভেঙে যাওয়ায় হাজার হাজার মানুষের দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। জনপ্রতিনিধিরা দুর্ভোগ লাঘবের আশ্বাস দিলেও তা এখনও বাস্তবায়ন হয়নি। এ কারণে এলাকাবাসীর উদ্যোগে ও সহযোগিতায় বাঁশের সাঁকোটি নির্মাণ করা হয়েছে।

স্থানীয়দের টাকায় সাঁকো নির্মাণের কথা স্বীকার করেছেন ৩ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর সাইফুল ইসলাম। তিনি টিনিউজকে জানান, দুই-একদিনের মধ্যেই জনসাধারণের চলাচলের জন্য পৌর অর্থায়নে সড়কটির মেরামত কাজ শুরু করা হবে।
এ বিষয়ে টাঙ্গাইল পৌরসভার মেয়র সিরাজুল হক আলমগীর টিনিউজকে জানান, দ্রুতই সড়কটি মেরামত করা হবে।

 

 

 

 

ব্রেকিং নিউজঃ