টাঙ্গাইল পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ডের উপনির্বাচন ২ নভেম্বর

584

স্টাফ রিপোর্টার ॥
টাঙ্গাইল পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ডের উপনির্বাচন মঙ্গলবার (২ নভেম্বর) অনুষ্ঠিত হবে। এদিন সকাল ৮টা থেকে বিরতিহীনভাবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ভোট গ্রহণ চলবে। নির্বাচন সুষ্ঠু করতে পর্যাপ্ত সংখ্যক আইনশৃঙ্খলা বাহিনী মোতায়েনসহ সব ধরনের প্রস্ততি নিয়েছে কর্তৃপক্ষ। পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ডটি বেড়াডোমা, দিঘুলিয়া, পার দিঘুলিয়া, বেপারি পাড়া, ফকির পাড়া ও ঘোনাপাড়া নিয়ে গঠিত হয়েছে। এই ওয়ার্ডে মোট ভোটার রয়েছে ৭ হাজার ৫৭২ জন। এর মধ্যে মহিলা ভোটার ৩ হাজার ৮৫১ ও পুরুষ ভোটার ৩ হাজার ৬২১ জন।
জেলা নির্বাচন অফিস সূত্র জানায়, এই উপনির্বাচনে ৫ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এরা হলেন- জহুরুল ইসলাম আজাদ (বোতল), মোশারফ হোসেন (ডালিম), মীর মঈনুল হক লিটন (উটপাখি), আমির হোসেন (টেবিল ল্যাম্প), হাবিবুল হাসান কনক (পাঞ্জাবি)। কিন্তু প্রতীক বরাদ্দ দেয়ার পর আমির হোসেন (টেবিল ল্যাম্প) ও হাবিবুল হাসান কনক (পাঞ্জাবি) নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন। স্থানীয় ভোটাররা জানান, উপনির্বাচনে জহুরুল ইসলাম আজাদ এবং মোশারফ হোসেনের মধ্যে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হবে।
এই ওয়ার্ডের দিঘুলিয়া শহীদ মিজানুর রহমান উচ্চ বিদ্যালয় ও বেড়াডোমা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনের এই দুই কেন্দ্রে ১২ জন পুলিশ এবং ১৬ জন করে আনসার সদস্য দায়িত্ব পালন করবে।
এ ব্যাপারে টাঙ্গাইল জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা এএইচএম কামরুল হাসান বলেন, উপনির্বাচন সুষ্ঠু করার লক্ষে সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। ভোট গ্রহণ কর্মকর্তারা ইতিমধ্যে মালামাল নিয়ে কেন্দ্রে অবস্থান করছে। ব্যালট পেপার মঙ্গলবার (২ নভেম্বর) সকালে দেয়া হবে। আশা করছি নির্বাচন সুষ্ঠু এবং শান্তিপূর্ণভাবে অনুষ্ঠিত হবে।
উল্লেখ্য, চলতি বছরের গত (৩০ জানুয়ারী) পৌরসভা নির্বাচনে আনোয়ার সাদাত তানাকা এই ওয়ার্ডের কাউন্সিলর হিসেবে নির্বাচিত হয়। কিন্তু গত (২০ জুন) কাউন্সিলর তানাকা হৃদ রোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেন। তার মৃত্যুর কারণেই এ ওয়ার্ডে উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

 

 

 

ব্রেকিং নিউজঃ