টাঙ্গাইল পৌরসভার ১৮ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থীদের প্রচারণা

150

নোমান আব্দুল্লাহ / রবিন তালুকদার ॥
টাঙ্গাইল পৌরসভার ১৮ নং ওয়ার্ডটি গুরুত্বপূর্ণ। এই ওয়ার্ডে ভোটার ৭ হাজার ২৮৩ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ৩ হাজার ৫৫০ জন ও নারী ভোটার ৩ হাজার ৭৩৩ জন। সাবলিয়া, পাঞ্জা পাড়া, পূর্ব পাড়া, স্টেশন রোড, ডায়বেটিস হাসপাতাল রোড, সিএনবি স্টাফ কোয়ার্টার রোড, কোদালিয়া নার্সারি রোড নিয়ে ১৮ নং ওয়ার্ড গঠিত। বিগত সময়ে এই ওয়ার্ডে অনেকেই কাউন্সিলর হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন। নির্বাচিত এসব জনপ্রতিনিধিরা তাদের এলাকায় বিভিন্ন ধরনের প্রতিশ্রুতি এবং উন্নয়নমূলক কাজও করেছেন। কিন্তু তারপরেও রয়ে গেছে বিভিন্ন রকমের সমস্যা।
নির্বাচনের তফসিল না হলেও নির্বাচনে প্রার্থীদের প্রচারণা দেখার মতো। মোড়ে মোড়ে ব্যানার, ফেস্টুন ও পোষ্টার দেখা গেছে। সারাদিন ভোটারদের বাড়ি বাড়ি যাওয়া আসাও চলছে প্রার্থীদের। আবার সন্ধ্যার পর থেকেই প্রার্থীদের চায়ের দোকান, বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় জমায়েত হয়ে যার যার প্রচারণা চালিয়ে যেতেও দেখা যায়।
এই ওয়ার্ডে বর্তমান কাউন্সিলরসহ ৫ জন প্রার্থী নির্বাচনে প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। বর্তমান কাউন্সিলর মাহবুবা করিম মিনা, হাবিবুর রহমান টুটুল, আখতারুজ্জামান ফজল, মোহাম্মদ আলম এবং আসাদুজ্জামান পিন্স নির্বাচন করবেন বলে জানা গেছে।
সমাজের বিভিন্ন শ্রেণীর লোকজন বসবাস করে এই ওয়ার্ডে। ১৮ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দারা টিনিউজকে জানায়, এই ওয়ার্ডের প্রধান সমস্যা হলো অল্পবৃষ্টি হলেই বিভিন্ন এলাকায় হাটু সমান জলাব্ধতা সৃষ্টি হয়। এছাড়া ভিতরের অনেক রাস্তা এখনো কাঁচা রয়েছে। মাদকসেবী এবং চুরির প্রবণতা রয়েছে। অনেক জায়গায় রাস্তার লাইটগুলো ঠিক মতো জ¦লে না। সাপ্লাইয়ের পানি স্বল্পতা রয়েছে। নিরব চাঁদাবাজের অভিযোগ আছে। বিভিন্ন এলাকায় মশার প্রচুর উপদ্রব রয়েছে। এছাড়া সাপ্লাইয়ের পানি ও গ্যাসের কিছু স্বল্পতা রয়েছে। এই এলাকায় খেলার মাঠ নেই।
এই ওয়ার্ডের সম্ভাব্য প্রার্থী বাবুল হাফিজিয়া মাদ্রাসা সংলগ্ন এলাকার বাসিন্দা মৃত ওমর আলী বাদশার ছেলে হাবিবুর রহমান টুটুল। তিনি জেলা নবীন লীগের সহ-সভাপতি। এছাড়া তিনি পেশায় ব্যবসায়ী। নির্বাচনের ব্যাপারে হাবিবুর রহমান টুটুল টিনিউজকে বলেন, অবহেলিত এই ওয়ার্ডটিতে উন্নয়ন করার জন্য আমি নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবো। এছাড়া এলাকায় আমার ব্যাপক গ্রহণযোগ্যতা রয়েছে। আশা করছি জনগণ আমাকে এবার নির্বাচনে জয়ী করবে। নির্বাচনে জয়ের ব্যাপারে আমি শতাভাগ আশাবাদি। তিনি আরো বলেন, আমাদের এই এলাকায় অনেক সমস্যা রয়েছে। করোনার সময় আমি ব্যক্তিগতভাবে শতাধিক পরিবারের মধ্যে সহায়তা রয়েছি। এছাড়া অন্যান্য সময়ে সহায়তা করে থাকি। আমি বিজয়ী হলে রাস্তার উন্নয়ন করবো। লিংক রোডগুলো পাকাকরণ করা হবে। রোড লাইট সচল এবং মাদক, চাঁদাবাজ এবং ভূমিদস্যুমুক্ত করা হবে। পৌরসভার কর্তৃক সকল নাগরিক সুযোগ সুবিধা ওয়ার্ডবাসীর ঘরে পাবে। সকল শ্রেণী পেশার মানুষকে সাথে নিয়ে আধুনিক, উন্নত এবং পরিচ্ছন্নতা একটি ওয়ার্ড গড়ে তুলবো। এই ওয়ার্ডের গুরুত্বপূর্ণ সড়কগুলো বীর মুক্তিযোদ্ধাদের নামে নামকরণ করা হবে।
এদিকে এলাকার বিভিন্ন অভিযোগের ব্যাপারে বর্তমান কাউন্সিলর মাহবুবা করিম মিনা কোন বক্তব্য দিতে রাজি হয়নি।
এছাড়া সম্ভাব্য কাউন্সিলর প্রার্থী আখতারুজ্জামান ফজল, মোহাম্মদ আলম এবং আসাদুজ্জামান পিন্স গণমাধম্যকে কোন বক্তব্য দিতে রাজি হয়নি।

ব্রেকিং নিউজঃ