টাঙ্গাইলে সংখ্যালঘু পরিবারের জমি দখলের চেষ্টা

211

টাঙ্গাইলের দেলদুয়ারে এক সংখ্যালঘু পরিবারের জমি জবর দখলের চেষ্টা করছে কতিপয় ভূমিদস্যু। উপজেলার এলাসিন ইউনিয়নের বারপাখিয়া গ্রামে ঘটেছে ঘটনাটি। এ ঘটনায় ১১ জনকে আসামি করে টাঙ্গাইল জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলী আদালতে মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলার বিবরণীতে জানা যায়, বারপাখিয়া গ্রামের ভূমিহীন জেলে সম্প্রদায়ের সদস্য মৃত বৃন্দাবন দাসের পুত্র শ্রী কালিপদ দাস। ভূমিহীন সংখ্যালঘু পরিবারের কালিপদ ২০০৯ সালে সরকারের খাস খতিয়ানের ১৮ শতাংশ ভূমি ৯৯ বছরের জন্য বন্দোবস্ত নেন। উপজেলা ভূমি অফিস বারপাখিয়া মৌজার ৫৪ শতাংশ খাস জমির ১৮ শতাংশ সরকারের নিয়মনীতি অনুসরণ করে বন্দোবস্তর দেন। যার খতিয়ান নং ১ দাগ নং ৫৮৫। বৈধ উপায়ে সরকারী বন্দোবস্ত মূলে ৬ বছর যাবৎ পরিবারটি শান্তি প্রিয় বসবাস করে আসলেও সম্প্রতি কয়েক জন ভূমিদস্যুর নজরে পরে এ জমি। ওই এলাকায় প্রভাবশালী চক্রটি সংখ্যালঘু নিরীহ পরিবারের কাছ থেকে জমিটি দখলে নেয়ার চেষ্টা চালাচ্ছে। সে লক্ষ্যে ২০ জুলাই ভূমিদস্যু চক্রটি দেশীও অস্ত্রে সঞ্জিত হয়ে ওই পরিবারে উপর হামলা করে বসতবাড়ি থেকে উচ্ছেদের চেষ্টা চালায়। এ সময় কালিপদ দাসের স্ত্রী, পুত্র ও পুত্রবধুদের বেদম মারপিট ও লুটপাট চালানো হয়। পরে অসহায় পরিবারটির ডাক চিৎকারে আশপাশের লোকজন ওই স্থানে জড়ো হলে ভূমিদস্যুরা মৃত্যুর ভয় দেখিয়ে চলে যায়। পরে ওই এলাকার আলিম, মনু মিয়া, জয়নাল, কদ্দুস, রায়হান, সাইদুর, সোলাইমান, মাসুদ মিয়া, মোস্তফা মিয়া, রফিকুলসহ ১১ জনকে আসামি করে জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলী আদালতে মামলা করে কালিপদ দাস। মামলা করায় আসামিরা কালিপদ দাসকে সপরিববারে জানে মেরে ফেলার হুমকি প্রদান করছে বলে অভিযোগ করেছেন তিনি।

ব্রেকিং নিউজঃ