রবিবার, সেপ্টেম্বর 20, 2020
Home টাঙ্গাইল টাঙ্গাইলে নতুন কেউ করোনায় আক্রান্ত হয়নি ॥ মৃত্যু ২ জন

টাঙ্গাইলে নতুন কেউ করোনায় আক্রান্ত হয়নি ॥ মৃত্যু ২ জন

নোমান আব্দুল্লাহ ॥
টাঙ্গাইলে গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে কেউ করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়নি। তবে নতুন কেউ আক্রান্ত না হলেও করোনায় জেলায় দুইজনের মৃত্যু হয়েছে। রোববার (১৩ সেপ্টেম্বর) পর্যন্ত করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ২৮৮৬ জন। করোনায় আক্রান্ত হয়ে মোট মারা যায় ৫২ জন।
সিভিল সার্জন অফিস সূত্র জানায়, করোনায় বাসাইল এবং ঘাটাইলে যথাক্রমে একজন করে মোট ২ জনের মৃত্যু হয়েছে। করোনায় জেলায় মোট ৫২ জনের মৃত্যু হয়েছে। মোট সুস্থ হয় ২১৮৯ জন, আর চিকিৎসাধীন রয়েছেন ৬৪৫ জন। এখন পর্যন্ত আক্রান্তদের মধ্যে ১৭ জন রোগী টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালের করোনা ডেডিকেডেট ইউনিটে ভর্তি রয়েছেন। জেলার বিভিন্ন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে ৩ জন, টাঙ্গাইলের বাইরে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে চিকিৎসাধীন রয়েছে ১০ জন এবং বাড়িতে থেকে চিকিৎসা নিচ্ছে ৬১৫ জন। এদিকে এখন পর্যন্ত মোট ১৭২৬৮ জনের নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।
সূত্র আরো জানায়, গত (৮ এপ্রিল) জেলায় প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয়। সদর উপজেলায় করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি। আর সবচেয়ে কম করোনা রোগী শনাক্ত হয় বাসাইল উপজেলায়। জেলায় এপ্রিল মাসে ২৪ জন, মে মাসে ১৪১ জন, জুন মাসে ৪৪৭ জন, জুলাই মাসে ১০২৬ জন এবং আগস্ট মাসে ৯৫৬ জন করোনায় আক্রান্ত হয়। আর চলতি মাসে রোববার (১৩ সেপ্টেম্বর) পর্যন্ত ২৯২ জন করোনায় আক্রান্ত হয়।
প্রসঙ্গত, করোনায় টাঙ্গাইলের নবাগত জেলা প্রশাসক, সংসদ সদস্য, সিভিল সার্জন, মেয়র, প্যানেল মেয়র, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার, ইউএনও, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, সাংবাদিকসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গ আক্রান্ত হয়েছেন।
উল্লেখ্য, গত (১ মার্চ) থেকে রবিবার (১৭ মে) পর্যন্ত বিদেশে থেকে জেলায় এসেছে ৫ হাজার ৭০৫ জন। কোভিড-১৯ চিকিৎসায় প্রস্তুত রয়েছে জেলার সরকারী হাসপাতালের ৫০টি বেড, উপজেলা পর্যায়ে আইসোলেশন বেড রয়েছে ৫৮টি। ডাক্তার রয়েছে ২৪২ জন, নার্স রয়েছে ৪১৯ জন। করোনা আক্রান্ত রোগী আনা নেয়া করার জন্য এ্যাম্বুুলেন্স রয়েছে ২টি। বৃহস্পতিবার (৭ আগস্ট) পর্যন্ত ব্যক্তিগত সুরক্ষা সমগ্রী পিপিই মজুদ রয়েছে ৪ হাজার ৫৩৯টি এবং মাস্ক ২ হাজার ৩৯১টি। বৃহস্পতিবার (৭ আগস্ট) পর্যন্ত জেলায় ২ লাখ ২২ হাজার ৫০০ পরিবারের মধ্যে ৩০৫০ মে.টন চাল ও ৮০ হাজারটি পরিবারের মধ্যে নগদ ১ কোটি ৬০ লাখ টাকা ও শিশু খাদ্য বাবদ ২৭ হাজার ৬৬৬ পরিবারকে ৫১ লাখ টাকা প্রদান করেছে জেলা প্রশাসন।

 

ব্রেকিং নিউজঃ