টাঙ্গাইলে করোনায় অনলাইনে কোরবানির পশুর হাট

5

জাহিদ হাসান ॥
কোরবানির ঈদের অন্যতম উপলক্ষ্য পশু কোরবানি। এবার করোনার কারণে পশুর হাটে যেতে অনেকের অনীহা রয়েছে আর আগ্রহ বেড়েছে অনলাইন হাটগুলোতে পশু কেনাকাটায়। করোনা পরিস্থিতিতে ডিজিটাল প্লাটফর্ম ব্যবহার করে ঘরে আনছেন কোরবানির পশু। করোনাকালে অনলাইনে মানুষের আগ্রহ বাড়বে ধারণা করে জমজমাট আয়োজনের পসরা সাজিয়েছে বিভিন্ন নামের অনলাইন পশুর হাট। বিভিন্ন রঙ আর সাইজের পশুতে সাজানো হয়েছে বিভিন্ন ওয়েবসাইট। ক্রেতারা পছন্দমতো দেখছেন আর ঘরে বসেই অর্ডার দিয়ে কিনতে পারছেন। সরকারীভাবে চালু হয়েছে অনলাইন পশুর হাট। টাঙ্গাইলেও চালু হচ্ছে অনলাইন পশুর হাট।
চাঁদ দেখা সাপেক্ষে আগামী শনিবার (১ আগস্ট) মুসলমানদের অন্যতম প্রধান ধর্মীয় উৎসব ঈদ-উল-আযহা উদযাপিত হতে পারে। কয়েক মাস ধরে চলা করোনা ভাইরাসের প্রভাব যে এবারের কোরবানির ঈদেও কমবে না সে ধারণা সামনে রেখেই প্রায় একমাস ধরে নানা প্রস্তুতি নিয়ে সামনে আসে বিভিন্ন অনলাইন মার্কেট প্লেসগুলো। ইতোমধ্যেই কোন সাইটে কেনাকাটা জমজমাট, কোনটিতে শুরু হয়েছে মাত্র আবার কোন সাইটে এখনও শুরু হয়নি। অনলাইন মার্কেট সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ছোঁয়াচে এই ভাইরাসের সংক্রমণ এড়াতে অনলাইনে পশু বিক্রিতেও এবার বাড়তি সতর্কতা নিয়েই কাজ করছেন। মানুষের অন্যান্য বছরের চেয়ে বেশি আগ্রহ আছে। দেশে অনলাইনে কোরবানির পশু বেচাকেনা অনেক আগে থেকেই শুরু হলেও এবার টাঙ্গাইলে প্রথম অনলাইনে বেচাকেনা শুরু হবে। কারণ করোনা ভাইরাস বদলে দিয়েছে মানুষের স্বাভাবিক জীবনযাত্রা। সচেতন মানুষ এখন ভিড় এড়িয়ে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখেই দৈনন্দিন কাজকর্ম করছেন। ভাইরাসের সংক্রমণ এড়াতে মানুষ এখন অফিস, ব্যবসা-বাণিজ্য, নিত্যপণ্য কেনাকাটা, শিক্ষা-স্বাস্থ্য সবকিছুতেই ব্যবহার করছেন অনলাইন প্লাটফর্ম।
দেশের খামারি ও ক্রেতাদের স্বাস্থ্য নিরাপত্তার কথা মাথায় রেখে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ কোরবানির পশু ক্রয়-বিক্রয়ের জন্য ডিজিটাল হাটের ব্যবস্থা করেছে। এটিই হচ্ছে সরকারী উদ্যোগে দেশের সবচেয়ে বড় ডিজিটাল পশু কোরবানির হাট। এ হাটে ক্রেতারা ঘরে বসেই গরুর ছবি ও ভিডিও দেখার এবং লাইভ ওজন জানার সুযোগ পাবেন। একইসঙ্গে তিনি গরুর মালিক, খামারি বা ব্যাপারীদের সঙ্গে সরাসরি যোগাযোগ করার সুযোগ পাবেন। এই ডিজিটাল হাটের জন্য সারাদেশ থেকে গরু-ছাগলের চাষী, খামারের মালিক ও সাধারণ পশু ব্যবসায়ীদের নিবন্ধন কার্যক্রমসহ অন্যান্য কার্যক্রম শুরু হয়েছে।
ফেসবুকে টাংগাইল্ল্যা গরুর অনলাইন হাট নামে একটি পেইজ খুলেছে বিশ^বিদ্যালয়ের দুই ছাত্র রাসেল মাহমুদ ও সাব্বির হোসেইন। তারা তাদের পেইজের মাধ্যমে জানান, করোনার ক্রান্তিকালীন সময়ে, বাংলাদেশ সরকারের ঘোষিত অনলাইন গরুর হাট প্রক্রিয়াকে স্বাগত জানিয়ে টাঙ্গাইলেও চালু হয়েছে অনলাইন গরুর হাট। যেখানে খামারী বা স্থানীয় পশু পালনকারীগণ খুব সহজে তাদের পশু বিক্রি করতে পারবেন । আগ্রহী ক্রেতারা পশুর মাপ, লাইভ ওয়েট, ছবি দেখে পছন্দ করলে তা নির্দিষ্ট ঠিকানায় পৌছে দেয়া হবে (ডেলিভারী চার্জ প্রযোজ্য)। প্রয়োজনে বিক্রেতার বাসায় গিয়ে গরু দেখানের ব্যবস্থা করানো হবে।
বিক্রেতাগন, ভাইরাসের কারনে দেশে বিপর্যয় সৃষ্টি হয়েছে। ফলে হাটে ক্রেতার সংখ্যা হবে খুবই কম। তাছাড়াও স্বাস্থ্যবিধি মানার পরও হাট বসানো, ক্রয়-বিক্রয় খুবই ঝুকিপূর্ন। কোরবানীযোগ্য গবাদিপশু বিক্রি হবার সম্ভাবনাও কম। আর তাই, অনলাইনে পশু বিক্রি নিরাপদ এবং বিক্রির অন্যতম প্রধান উপায়। আমাদের এই পেজের সাথে যুক্ত হোন, প্রদত্ত নম্বরে ফোন করুন। আমরা নিজে গিয়ে আপনার গরুর ছবি এবং মাপ নিয়ে আসব। আপনার প্রদত্ত দামেই সেটা বিক্রি হবে। হয়রানী এড়াতে প্রয়োজনে ডেলিভারি দেয়ার সময় আপনি সাথে এসে ক্রেতার সাথে কথা বলতে পারেন এবং নিজ হাতে টাকা বুঝে নিতে পারেন। আমাদের মূল উদ্দ্যেশ্য নিরাপদ হাট, হয়রানী নয়। ক্রেতাগন, আপনারা জানেন সরকারী হিসাব অনুযায়ী দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ২ লক্ষের কাছাকাছি। টাঙ্গাইলেও এই সংখ্যা অনেক এবং তা দিন দিন বাড়ছে। জানমালের নিরাপত্তা এখন বড় প্রশ্ন। কিন্তু এর মাঝে যেন পবিত্র কোরবানী, আড়ালে না পড়ে যায় ! আল্লাহ্ তালা’র উদ্দ্যেশে আমাদের ইবাদত যেন অক্ষুন্ন থাকে। এই দুই বিষয় আমলে রেখে আমাদের এই উদ্যোগ। আপনার কষ্টে উপার্জিত হালাল টাকা নিয়ে ব্যাবসা নয় বরং তা যেন ঠিকমত আল্লাহর রাস্তায় ব্যয় হয় সেটাই আমাদের চাওয়া। আমাদেরকেও একদিন পরকালে যেতে হবে। অনলাইন কেনাকাটাতে অনেকেই চিন্তিত থাকেন। এটা সত্যি অনেক সময় খারাপ পণ্য পাওয়া যায়। কিন্তু আমরা আপনাকে কোন ধরনের হয়রানী ছাড়া পশু বাড়িতে পৌছে দিয়ে যাব। তারপরও যদি আপনি চান তাহলে আপনার পছন্দকৃত গরু, খামারে গিয়ে দেখে আসতে পারবেন। তবে আমাদের বিক্রতাগন/খামারী ভিন্ন ভিন্ন জায়গার হওয়ার সব গরু গিয়ে দেখানো সম্ভব হবে না। তবে আমরা আপনাকে সর্বোচ্চ সেবা দেয়ার চেষ্টা করব।
আমাদের উদ্দ্যেশ্য ও লাভ, দেশের এই সঙ্কটে যদি আমরা এই মহান ইবাদতের অংশ হতে পারি সেটাই অনেক। তাছাড়াও বর্তমান মন্দায় নিজেদের কর্মসংস্থানের জন্য আমাদের এই প্রয়াস। যে কোন প্রয়োজনে আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন। পেজের সাথে সংযুক্ত থাকুন। লাইক দিন, ইচ্ছে হলে শেয়ার দিন আর আমাদের মেসেজ করতে পারেন।

ব্রেকিং নিউজঃ