টাঙ্গাইলে আরও ৩৪৯ ভূমি ও গৃহহীন পরিবার পাচ্ছেন জমিসহ ঘর

111

স্টাফ রিপোর্টার: টাঙ্গাইলে আরও ৩৪৯চি  ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবার পাচ্ছেন জমিসহ আধা পাকা ঘর।এর মধ্যে সদর উপজেলায় ৭৫ টি। ইতিপূর্বে দুই হাজার ৯৯৩ টি ঘর হস্তান্তর করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার ( ২১ জুলাই) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে তৃতীয় পর্যায়ের দ্বিতীয় ধাপের ঘর গুলো আনুষ্ঠানিকভাবে ঘর হস্তান্তরের কার্যক্রম উদ্বোধন করবেন।

 

বুধবার (২০ জুলাই)  সকালে সদর উপজেলার বাঘিল ইউনিয়নের পাইকমুড়িল আশ্রয়ণ প্রকল্পে আয়োজিত প্রেস ব্রিফিংয়ে জেলা প্রশাসক ডক্টর মো. আতাউল গনি এ তথ্য জানান।

জেলা প্রশাসক জানান, প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক ঘর উদ্বোধনের পর জেলা প্রশসনের সম্মেলন কক্ষে জেলার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপকারভোগীদের হাতে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে নতুন ঘরের চাবী ও জমির কবুলিয়ত দলিল হস্তান্তর করবেন।

 

প্রেস ব্রিফিংয়ে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) সোহানা নাসরিন, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রানুয়ারা খাতুন, সহকারি কমিশনার (ভূমি) অতনু বড়ুয়া, টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবের সভাপতি জাফর আহমেদ, বাঘিল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এসএম মতিয়ার রহমান মন্টু ও জেলায় কর্মরত সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।

 

জেলা প্রশাসক ড. মো. আতাউল গনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষণা দিয়েছে সারা বাংলাদেশে একজন মানুষও ভূমি ও গৃহহীন থাকবে না। তারই অংশ হিসেবে সারা বাংলাদেশে আশ্রয়ণ প্রকল্পের মাধ্যমে গৃহহীনদের গৃহ নির্মাণ করে দেয়া হচ্ছে। সেই ধারাবাহিকতায় টাঙ্গাইল জেলায় আরও ৩৪৯ ঘর প্রস্তুত করেছি। বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘর হস্তান্তর কার্যক্রমের উদ্বোধন করবেন। গৃহহীনদের একেকটি ঘর তাদের একেকটি অঙ্গীকার।

 

তিনি আরও বলেন, ইতিপূর্বে যে সকল গৃহহীনদের মাঝে ঘর হস্তান্তর করা হয়েছে। সেই সব আশ্রয়নে বিশুদ্ধ পানি, বিদ্যুৎ, বৃক্ষরোপন করা হয়েছে।

 

এ ছাড়াও তাদের স্বাবলম্ভী করতে সেলাই প্রশিক্ষনের মাধ্যমে সেলাই মেশিন বিতরণ করা হয়েছে। এ দিকে বন্যায় ভাঙনের শিকার হয়ে যে সকল মানুষ গৃহহীন ও ভূমিহীন হবে তাদেরও তালিকা প্রস্তুত করে জমিসহ গৃহ নির্মাণ করা হবে।

 

ব্রেকিং নিউজঃ