টাঙ্গাইলের ডোবা-নালায় বর্ষার নতুন পানি ॥ মাছ ধরার উৎসব

3

জাহিদ হাসান ॥
নদীতে আসতে শুরু করেছে বর্ষার নতুন পানি। নদী সংলগ্ন চরাঞ্চল ডুবতে শুরু করেছে। নদীর সাথে সংযোগ রয়েছে এমন সব খাল-নালাতে বর্ষার নতুন পানি প্রবেশ করেছে। নতুন পানির সাথে ঝাঁক বেঁধে ছোট মাছও এসেছে এ সকল ডোবা-নালাতে। স্থানীয় শিশু-কিশোরদের বড়শি দিয়ে এ সকল ডোবা-নালাতে মাছ ধরতে দেখা গেছে। আর সেই মাছ ধরা দেখতে ভিড় জমিয়েছে সাধারণ মানুষও। সদর উপজেলার বাঘিল ইউনিয়নের বিভিন্ন খাল, শাখা নদীর পাশের ছোট্ট ডোবাগুলোতে শিশু-কিশোরদের মাছ ধরতে দেখা গেছে।
দেখা গেছে, সব জায়গায় পানি এসে জমা হয়েছে। বর্ষার নতুন পানির সাথে ছোট মাছ এসেও জমা হয়েছে ছোট্ট নালাতে। স্থানীয় শিশু-কিশোরদের বড়শি দিয়ে মাছ ধরতে দেখা গেছে। বিকেল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত বড়শি দিয়ে পুঁটি ও টেংরা জাতীয় মাছ ধরছে তারা। স্থানীয় এ সকল শিশু-কিশোররা টিনিউজকে জানায়, সকালের দিকেই মাছ দেখতে পায় তারা। ডোবার অল্প পানিতে ছোট ছোট ঘাই দিতে থাকে। পরে দেখা যায় পুঁটি ও টেংরা মাছের ঝাঁক নদী থেকে আসছে। বিকেলের দিকে বড়শি নিয়ে ডোবায় ফেলতেই মাছ ধরা পড়ে। এ খবর ছড়িয়ে পড়লে স্থানীয় শিশু-কিশোররা দলে দলে বড়শি নিয়ে মাছ ধরতে আসে। শিশু কিশোররা টিনিউজকে আরো জানায়, বেশির ভাগই পুঁটি মাছ। মাঝে মধ্যে টেংরা মাছও ধরা পড়ছে। অনেকে ১৫/২০টি করে পুঁটি মাছ ধরেছে বড়শি দিয়ে। টোপ হিসেবে পাউরুটি, আটা ব্যবহার করছে তারা।
রাতুল নামে স্থানীয় এক ব্যক্তি টিনিউজকে জানান, বিকেলে বাচ্চাদের মাছ ধরা দেখে এগিয়ে গেলাম। ছোট্ট একটা ডোবাতে বর্ষার পানি এসেছে। নদী থেকে মাছও এসেছে অনেক। বড়শি দিয়ে মাছ ধরছে বাচ্চারা। গত কয়েকদিন ধরেই নদনদীতে পানি বাড়তে শুরু করেছে। নদীর নতুন পানি প্রবেশ করছে বিভিন্ন খাল-বিল, ডোবা-নালাতে। নতুন পানির সাথে নানা ধরনের মাছও আসতে শুরু করেছে। এ সময়টায় পেশাদার মৎস শিকারিদের পাশাপাশি নদী বা জলাশয় সংলগ্ন এলাকার সাধারণ মানুষদেরও মাছ শিকার করতে দেখা যাচ্ছে। শিশু-কিশোররাও ছোট বড়শি দিয়ে ছোট ছোট মাছ ধরার উৎসবে মেতে উঠেছে ডোবা-নালাতে।

ব্রেকিং নিউজঃ