সোমবার, আগস্ট 10, 2020
Home অপরাধ টাঙ্গাইলের কাগমারায় ঋণের টাকার চাপে গৃহবধূর আত্মহত্যা

টাঙ্গাইলের কাগমারায় ঋণের টাকার চাপে গৃহবধূর আত্মহত্যা

স্টাফ রিপোর্টার ॥
টাঙ্গাইলে সুদের টাকা পরিশোধ করতে না পারায় সুদ ব্যবসায়ীর হুমকিতে গৃহবধূ গলায় রশি দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন বলে নিহতের পরিবার অভিযোগ তুলেছে। পুলিশ নিহত গৃহবধূ শান্তা বেগমের (২৮) লাশ উদ্ধার করে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। বুধবার (২২ জুলাই) পৌর এলাকার পশ্চিম আকুর টাকুর পাড়ায় (কাগমারা) এ ঘটনা ঘটেছে। নিহত শান্তা ওই এলাকার ভাড়াটিয়া আলমগীর হোসেনের স্ত্রী। এ ঘটনায় সিআইডি’র টিম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।
নিহতের স্বামী আলমগীর হোসেন টিনিউজকে জানান, পারিবারিক সমস্যার কারণে গত প্রায় এক বছর পূর্বে টাঙ্গাইল পৌর এলাকার ছবুর মিয়ার ছেলে সোনা মিয়ার কাছ থেকে শতকরা ১০ টাকা হারে ৪০ হাজার টাকা ঋণ নেয় নিহত গৃহবধু শান্তা বেগম। ঋণ নেয়ার পর থেকে নিয়মিত সুদের টাকা পরিশোধ করলেও গত চার মাস যাবৎ মহামারী করোনা ভাইরাসে বেকার হয়ে পরে দিন মুজুর স্বামী আলমগীর হোসেন। সংসারের অভাব অনটন থাকায় গত চার মাস যাবৎ তারা সুদের টাকা পরিশোধ করতে পারেনি। ইতিপূর্বে বেশকয়েকবার সুদের ব্যবসায়ী সোনা মিয়ার স্ত্রী বাসায় এসে টাকার জন্য চাপ সৃষ্টি করেছে।
ঘটনার দিন বুধবার (২২ জুলাই) সকালে পূণরায় আবারও সোনা মিয়ার স্ত্রী বাড়িতে এসে নিহত গৃহবধুকে আজ দিনের মধ্যেই টাকা পরিশোধ করতে চাপ প্রয়োগ করে এবং তাকে অপমান করে। টাকা পরিশোধ এবং অপমান সইতে না পেরে এর কিছুক্ষন পরেই গৃহবধু কাউকে কিছু না বলে আত্মহত্যা করেছে বলে অভিযোগ করে স্বজনরা। এ ঘটনায় অভিযুক্ত সোনা মিয়ার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী করেছেন নিহতের পরিবার ও এলাকাবাসী।
অভিযুক্ত সোনা মিয়া টিনিউজকে বলেন, আমি ওই গৃহবধুর কাছে কোন টাকা পাই না। আমি তাদের বাড়িতেও যাইনি। তাকে কোন টাকার চাপও দেইনি। তবে সোনার স্ত্রী ৪০ হাজার টাকা তাদের সুদে টাকা দিয়েছে। সে টাকার জন্য সকালে নিহতের বাড়িতে যায় বলে স্বীকার করেন।
এ ঘটনায় টাঙ্গাইলের সিআইডি’র (এসআই) প্রীতেশ তালুকদার টিনিউজকে বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারনা করা হচ্ছে নিহত শান্তা বেগম আত্মহত্যা করেছে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন হাতে পেলে ঘটনার মুল তথ্য জানা যাবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

ব্রেকিং নিউজঃ