ঘাটাইলে ভবনদত্ত বিদ্যালয়ের সহকারি প্রধান শিক্ষক আলতাবকে গ্রেফতার

300

স্টাফ রিপোর্টার ॥
টাঙ্গাইলের ঘাটাইলে ৯০ বছরের এক বৃদ্ধাকে মারধরের অভিযোগে গ্রেফতারকৃত ভবনদত্ত গণ উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারি প্রধান শিক্ষক আলতাব হোসেনকে বহিষ্কারের দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসী। শনিবার (১ মে) দুপুরে গ্রেফতারের পর টাঙ্গাইল আদালতের মাধ্যমে তাকে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।
মামলার বিবরণে জানা যায়, দেলুটিয়া গ্রামের ওসমান গনির ছেলে আলতাব হোসেনের (৫০) সঙ্গে জমি সংক্রান্ত বিরোধ ও মামলা চলে আসছিল। সেই সুবাদে মঙ্গলবার (২০ এপ্রিল) বিকেলে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে ভবনদত্ত গণ উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারি প্রধান শিক্ষক আলতাব হোসেনসহ ৭/৮ জন সন্ত্রাসী বাহিনী জমির উদ্দিন সরকারের বাড়িতে প্রবেশ করে তাকে বেধম মারপিট করে। পরে তার বাড়ির লোকজনের ডাক চিৎকারে আশেপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে আলতাব ও তার বাহিনী পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা আহত অবস্থায় জমির উদ্দিন সরকারকে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে। পরে কর্তব্যরত চিকিৎসক জানান- তার ডান পায়ের হাড় ভেঙ্গে গেছে। পরে আহত জমির উদ্দিন সরকার বাদি হয়ে আলতাব হোসেনসহ ৭/৮ জন অজ্ঞাত আসামী করে ঘাটাইল থানায় মামলা দায়ের করেন। ঘাটাইল থানায় মামলা নম্বর-জি আর ৫০/২০২১।
পুলিশ সূত্রে জানা যায়, এই ঘটনার পর মামলার প্রধান আসামী দেলুটিয়া গ্রামের ওসমান গনির ছেলে আলতাব হোসেনকে গত শনিবার (১ মে) সকালে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। পরে দুপুরে আদালতে হাজির করলে আদালত তাকে জেলহাজতে প্রেরণ করে।
মামলার বাদী জমির উদ্দিন সরকার টিনিউজকে বলেন, আমি বর্তমানে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ৮নং ওয়ার্ডের ৩ নং বেডে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছি। আলতাব আমার ছেলের বয়সি। তারপরও সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে আমার উপরে হামলা চালিয়েছে। আমি এর সুষ্ঠ বিচার দাবি করছি। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দুইজন এলাকাবাসী জানায়, আলতাব একজন শিক্ষক হয়ে যে সন্ত্রাসী কর্মকান্ড করছে তা মোটেও গ্রহণযোগ্য হয় না। এর আগেও তিনি বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকান্ড করেছে। কিন্তু অজানা কারণে পার পেয়ে যায়। আমরা তার বিদ্যালয় থেকে বহিষ্কার এবং শাস্তি দাবি করছি।
এ বিষয়ে ভবনদত্ত গণ উচ্চ বিদ্যালয়ের পরিচালনা কমিটির সভাপতি আ.ন.ম বজলুর রহিম রিপন টিনিউজকে বলেন, বর্তমানে বিদ্যালয় বন্ধ রয়েছে। যার কারণে আমরা কোন সিদ্ধান্ত নিতে পারছি না। বিদ্যালয় কার্যকম চালু হলেই কমিটির সবাইকে নিয়ে মিটিং করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
এ বিষয়ে ঘাটাইল উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার শফিকুল ইসলাম টিনিউজকে বলেন, আমি ঘটনাটি শুনি নাই। আপনার কাছ থেকে প্রথম শুনলাম। আমি ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের সাথে কথা বলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিব।

 

ব্রেকিং নিউজঃ